রাস্তায় বস্তা বন্দি তরুণির দেহ

খুন করা যেন ক্রমেই সহজ হয়ে উঠছে।প্রকাশ্য রাস্তায় বস্তা বন্দি হয়ে পড়ে থাকছে তরুণির দেহ।বৃহস্পতিবার আনন্দপুরের চৌবাগা এলাকায় এক পাম্পিং স্টেশনের কাছে বস্তা বন্দি তরুণির দেহ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।পুলিশ এসে বস্তা খুলে দেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠায়।প্রাথমিকভাবে জানা গেছে ২২-২৩ বছরের এক তরুণির দেহ,বস্তা বন্দি করে রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছে।খুনের ঘটনা বলেই পুলিশের অনুমান।প্রকাশ্য রাস্তায় যে ভাবে মানুষকে খুন করে ফেলে রাখতে কোন ভয় পাচ্ছে না দুষ্কৃতীর দল তা থেকে একটা বিষয় পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে সামাজিক অপরাধ প্রবণতা মারাত্মক আকার নিয়েছে।সমাজের সব স্তরেই ছড়িয়ে পড়ছে এই প্রবণতা।বৃহস্পতিবার রাস্তায় বস্তা বন্দি যুবতীর দেহ শনাক্ত করে পুলিশ কর্মীরা পর্যন্ত স্বীকার করতে বাধ্য হন খুন করার পর এই ভেবে প্রকাশ্য রাস্তায় বস্তার মধ্যে ভরে মৃত দেহ রেখে যাওয়া আসলে অপরাধীদের বেপরোয়া মানসিকতারই প্রমাণ।শহর ও শহরতলিতে অল্প বয়সী তরুণ তরুণিদের জীবন যাপনে যে উচ্ছৃঙ্খলা দেখা দিচ্ছে তা থেকেও নানা সমস্যা তৈরি হচ্ছে বলে মনবিদদের অভিমত।মৃতার পরিচয় জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত অফিসিয়ালি পুলিশের তরফে কিছু জানানো সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

,