নাগেরবাজার বিষ্ফোরণের সিআইডি তদন্ত

মঙ্গলবার দক্ষিণ দমদম পুরসভা এলাকার নাগের বাজারে বোমা বিষ্ফোরণে এক শিশুর মৃত্যু ও বেশ কিছুজনের আশঙ্কাজনকভাবে আহত হওয়ার ঘটানার তদল্ত করতে সিআইডিকে দায়িত্ব দিল রাজ্য সরকার।বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান তাঁরা বিষয়টি তদন্ত করার জন্য সিআইডিকে দায়িত্ব দিচ্ছেন।মঙ্গলবারের পর বুধবারও এই ঘটনায় রাজনৈতিক চাপানউতোর থামেনি।শাসক দলের পক্ষ থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর শানানো হলেও,বিজেপির নেতারা এটাকে পুরোপুরি শাসক তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের ফল বলেই জানাচ্ছেন।তাঁদের মতে ঐ এলাকার প্রমোটারি করা নিয়ে শাসক দলের ভেতরে দ্বন্দ্ব চলছেই।চেয়ার ম্যান পাচু রায় এলাকার একটা গোষ্ঠীকে প্রমোটারি করার সুযোগ করে দিচ্ছে যারা মূলত তাঁর অনুগত,এর বিরুদ্ধে ক্ষোভে ফুঁসছে অন্য গোষ্ঠী।প্রমোটারিকে কেন্দ্র করে কোটি কোটি টাকার লেনদেন হয় এলাকায়।তারই ফল এই গোষ্ঠীকোন্দল জনিত হামলা।বিজেপি নেতাদের এই অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল পাচু রায়কে,তিনি পরিষ্কার জানান,এলাকায় কোন গোষ্ঠী লড়াই নেই।এখানে নিয়ম মানলে প্রমোটারি করতে দেওয়া হয় সবাইকে না মানলে কাউকেই তা করতে দেওয়া হয় না।তাঁর  কোন অনুগত প্রমোটারি গোষ্ঠী নেই।পাচু রায়ের মতে এই ঘটনার জন্য বিজেপির শাখা আরএসএসই দায়ী।তারাই শান্ত এলাকাকে অশান্ত করতে চাইছে।পাচু রায়ের দাবিকে হাস্যকর বলে মনে করেন বিজেপি নেতারা।সিআইডি তদন্ত সম্পর্কেও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি বিজেপির নেতারা তাঁদের মতে ওসব লোকদেখানো ব্যপার ঘটনার সত্যতা চাপা দেওয়ার কৌশল।সিআইডির কোন মেরুদন্ডই নেই,ওরা স্রেফ মুখ্যমন্ত্রীর কথাতে স্ট্যাম্প দেওয়ার কাজ করবে।সব মিলিয়ে ইসলামপুরের পর নাগেরবাজার তৃণমূল বিজেপি দ্বৈরথ চলছেই।

,