IL&FS এরও রয়েছে গুজরাট কানেকশন। অার্থিক বেনিয়ম নাকি অারেকটা বড় কেলেঙ্কারি?

IL&FS  প্রতিষ্ঠানের পরিচালন পর্ষদ ভেঙে দিয়েছে সরকার। বাধ্য হয়েই। কারণ একাধিকবার ঋণ খেলাপির পর ফের ঋণের কিস্তি সময় মতো IL&FS জমা দিতে পারবে না বলেই অাশঙ্কা করা হচ্ছিল। একটি রিপোর্ট  থেকে জানা যাচ্ছে ২০১৯ সালের মার্চ নাগাদ প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকা ঋণ পরিশোধ করতে হবে IL&FSকে।  তাই এত বড় ঋণ খেলাপি হলে  দেশের  অার্থিক ব্যবস্থায় বড়সড় টালমাটালের অাশঙ্কা করা হচ্ছে। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে সরকারি এজেন্সিগুলি কি এতদিন জেগে ঘুমোচ্ছিল?  IL&FS এর ই্যকুয়িটি শেয়ার ক্যাপিটাল ৬৯৫০ কোটি টাকা অথচ ঋণের বোঝা ৯১ হাজার কোটি টাকা। প্রায় সাড়ে ১৩গুন। ২০১৭-১৮ অার্থিক বছরে সংস্থার ক্ষতির অঙ্ক ছিল ২৬৭০ কোটি টাকা। LIC সহ একাধিক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের হাতে IL&FS মালিকানার একটা বড় অংশ থাকা সত্ত্বেও এই অার্থিক অব্যবস্থার দায় কি সরকার এড়াতে পারে। একটি বেসরকারি সংস্থা হওয়া  সত্ত্বেও গুজরাট সরকারের ৭০ হাজার কোটি টাকার GIFT(  গুজরাট ইন্টারন্যাশনাল ফাইনান্সিয়াল টেকসিটি সংক্ষেপ গিফ্ট )সিটি প্রকল্প  নিয়মকে তোয়াক্কা না করেই উপহার দেওয়া হয়েছিল IL&FSকে। মনিলাইফে প্রকাশিত এক রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে সরকারের এই বেনিয়মের কারণে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রশ্ন উঠছে একটি বেসরকারি সংস্থাকে এতটা সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার বিষয় তত্পর ছিল কেন গুজরাট সরকার?IL&FS এর বেনিয়মের পিছনে কি অন্য কোন গল্প অাছে? এটা কি নিতান্তই একটি করপোরেট মিস ম্যানেজমেন্ট না কি অারেকটি বড় অার্থিক কেলেঙ্কারি যাকে চাপা দিতেই LICকে দিয়ে বেল অাউট করাতে চাইছে সরকার।

, ,