কেরলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে যৌন শোষণের তদন্ত?

 বাণিজ্যিক সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার জন্য  মহিলাকে  যৌন শোষণের অভিযোগ অাগেই উঠেছিল কেরলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমেন চ্যান্ডির বিরুদ্ধে। এবার তদন্তের সিদ্ধান্ত নিল পুলিস। ২০১৩ সালে গ্রেফতার হয় সরিথা নামে এক প্রতারক। তদন্তে সামনে অাসে মুখ্যমন্ত্রী অাবাসের একাধিক ব্যক্তিকে হাত করে ওমেন চ্যান্ডির কাছ পর্যন্ত পৌঁছন সরিথা। প্রভাবশালীদের নাম ব্যবহার করে ভুয়ো প্রকল্পে টাকা তোলে সে। সোলার কেলেঙ্কারি  নামে পরিচিত এই কেলেঙ্কারি  সামনে অাসার পর ২০১৩ সালে গ্রেফতার হয় সরিথা। সরিথা অভিযোগ করেন তাঁকে যৌন শোষণ করেছেন চ্যান্ডি তথা কংগ্রেসের একাধিক প্রভাবশালী নেতা। এবার সেই অভিযোগের তদন্ত শুরু করতে চলেছে কেরল সরকার।

এদেশের রাজনৈতিক নেতাদের চরিত্র নিয়ে খুব একটা গর্ব করে বলার তেমন কিছু ছিল না কোনদিনই। তবে এবার সেই স্তর নামতে নামতে খোদ এক মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে মহিলাকে যৌন শোষণের  অভিযোগের তদন্ত হতে শুরু হতে চলেছে। কিছুদিন অাগে তামিলনাড়ুতে কলেজ ছাত্রীদের টোপ দিয়ে নেতাদের যৌন লালসা মেটানোর খবর সামনে অাসে। সেখানেও নাম উঠে অাসে রাজ্যপাল ঘনিষ্ঠ এক মহিলার নাম।