কাঁচরাপাডা়য় এবার শুভ্রাংশু বনাম অর্জুন সিং

গোষ্ঠীকোন্দল তৃণমূলে নতুন কোন বিষয় নয়,এটা এখন সবাই জানে শাসক দলের ভেতরে ক্ষমতার ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব চলবেই।তবে সেই দ্বন্দ্বে এবার নতুন মাত্রা যুক্ত হল অর্জুন সিং ও শুভ্রাংশু রায়ের লড়াইতে।এই লড়াইটাও অবশ্য নতুন নয়,মুকুল রায় তৃণমূলে থাকাকালীন সময় থেকেই অর্জুন সিং তাঁর ঘোষিত বিরোধী বলে পরিচিত।মকুল রায় তৃণমূল ছাড়ার পর তার পুত্র শুভ্রাংশুকেও একইরকম শত্রু বলে মনে করেন ভাটপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিং।যদিও শুভ্রাংশু এখনও তৃণমুলেরই বিধায়ক।গত দুদিন ধরে কাঁচরাপাড়া এলাকায় ব্যাপক বোমাবাজি হয়েছে।গন্ডগোল থামাতে একজন স্থানীয় কাউন্সিলারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।ঐ কাউন্সিলার অর্জুন ঘনিষ্ট বলে খবর।এরই মধ্যে অর্জুন সিং সারাসরি শুভ্রাংশু রায়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন কাঁচরাপাড়ার মানুষ রায় পরিবারের জুলুমবাজি থেকে মুক্তি পেতে চান বলেই প্রতিবাদে নেমেছেন।অর্জুন সিং পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেছেন বিজেপির প্রভাবে মুকুল রায়ই পুলিশকে উসকে নির্দোষ মানুষজনকে গ্রেপ্তার করাচ্ছে।অর্জুনের এই অভিযোগ নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে রীতিমত শোরগোল পড়ে গেছে।এ রাজ্যে পুলিশ মুকুল রায়ের কথায় তৃণমূলের কর্মীদের গ্রেপ্তার করছে এমন অভিযোগ এর আগে কেউ কখোন করেছে বলে মনে পড়ছে না।শধু তাই নয় দলের মধ্যে থেকে মুকুল রায়ের ছেলে যে দলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে সে অভিযোগ করতেও ছাড়েননি ভাটপাডা়র বিধায়ক।এদিকে শুভ্রাংশু রায়ের শিবির থেকে দাবি করা হয়েছে কাঁচরাপাড়ায় যাবতীয় দুর্নীতিকে মদত দেয় অর্জুন সিং এর দুর্বৃত্ত বাহিনী।দিন কয়েক আগে শুভ্রাংশু নিজে জানিয়েছিলেন যে কাঁচরাপাড়ায় পুলিশ নিষ্ক্রিয়,গুন্ডা বদমাসরাই এলাকা নিয়ন্ত্রন করে।এরা সকলেই কাল ধান্দা করে পয়সা তোলে বলে অভিযোগ করেন বীজপুরের বিধায়ক।তাঁর ইঙ্গিত যে অর্জুন সিংয়ের দিকেই ছিল তা বুঝতে কারোরই তখন অসুবিধা হয় নি।তখনই বোঝা গেছিল এবার ঐ এলাকাতেও শাসক দলের গোষ্ঠীকোন্দল সামনে আসতে চলেছে।গত কয়েকদিন ধরে এলাকায় যে বোমাবাজি ও তাতে অর্জুন ও শুভ্রাংশুর যে দ্বন্দ্ব এবং বাকযুদ্ধ সামনে চলে এল তা শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়ায় সেটাই এখন দেখার।

,