গুজরাটের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী খুনে কেন ফের নাম উঠে অাসছে অমিত শাহের?

0
28

গুজরাটের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হারেন পান্ডিয়ার খুনের পিছনে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের ভূমিকা থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন গুজরাটের এক সাংবাদিক তথা হারেন পান্ডিয়ার পারিবারিক বন্ধু প্রশান্ত দয়াল। হারিনকে খুনের জন্য সোরাবুদ্দিন শেখকে  বরাত দিয়েছিলেন গুজরাট পুলিস কর্তা ডিজি  বানজারা। অার খুন করেছিল তুলিসরাম প্রজাপতি। সম্প্রতি মুম্বই অাদালতে জানিয়েছে সোরাবুদ্দিন শেখ খুনের মামলার অন্যতম এক সাক্ষী  অাজম খান। এর পরই হারেন পান্ডিয়ার স্ত্রী জাগরুতি পান্ডিয়াকে এক খোলা চিঠি লেখেন হারেন। সেই চিঠিতে  হারেন স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন হারেন পান্ডিয়ার খুনিদের শাস্তিদের জন্য তাঁদের লড়াইয়ের কথা। কী পরিস্থিতিতে হারেন খুন হন এবং এর পিছনে যে বিজেপি ছিল তাও এক সময় মনে করতেন জাগরুতি নিজেও। অথচ সেই জাগরুতিই বিজেপিতে যোগ দিযেএকটি কমিশনের চেয়ারপার্সন হয়েছেন এখন।

 ২০০৩ সালে অামেদাবাদে খুন হন হারেন পান্ডিয়া। অার ২০০৫ সালে ভুয়ো সংঘর্ষে নিহত হয় সোরাবুদ্দিন। সোরাবুদ্দিনের খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত হয়ে বেশ কিছু কাল জেলে ছিলেন বানজারা। গত বছর মামলা থেকে বেকসুর খালাস পান তিনি। প্রশান্তের দাবি হারেন পান্ডিয়ার সঙ্গে বানজারার কোন শত্রুতা ছিল না। তাই বানজারা কার নির্দেশে সোরাবুদ্দিনকে খুন করতে সুপারি দিয়েছিলেন সেটাই অাসল প্রশ্ন। এক্ষেত্রে মোদির সঙ্গে হারেনের এক সময়ের মনমালিন্যের কথা স্মরণ করে দিয়েছেন প্রশান্ত। সেই সঙ্গে হারেন জানিয়েছেন এর পিছনে যে অমিত শাহরে হাত থাকতে পারে তার সন্দেহের কারণ রয়েছে। অথচ এসব জানা সত্ত্বেও জাগরুতি বিজেপিতে যোগ দিয়ে ক্ষমতার অলিন্দে থাকায় হতাশা প্রকাশ করেছেন প্রশান্ত।

সূত্র দ্য ওয়ার