মল কর্তৃপক্ষের থেকেই নিতে হবে সংবেদনশীল হওয়ার পাঠ!

সম্প্রতি সাউথ সিটি মলের মধ্যে এক তরুণি তাঁর সদ্যজাত শিশুকে স্তন্য পান করানোর জন্য জায়গা খুঁজতে গিয়ে মলের এক কর্মীর কাছে জানতে পারেন যে সেখানে স্তন্যপানের কোন জায়গা নেই,তাঁকে শিশুকে স্তন দিতে হলে টয়লেটে গিয়ে দিতে হবে।এরপর সোশ্যাল মিডিয়াতে এই বিষয়টি নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়।যাবতীয় আলোচনায় ঐ মল কর্মীটিকে ভিলেন সাজিয়ে তাঁর সংবেদনহীনতা নিয়ে কটাক্ষ চলতে থাকে।এরপরের খবর ঐ মল কর্মীকে কাজ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।এমনকী শোনা যাচ্ছে মল কর্তৃপক্ষ মলের রক্ষণাবেক্ষনের জন্য যে বেসরকারি এজেন্সি মারফত কর্মী নিয়োগ করেছিল,তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে অন্য এক এজেন্সিকে দায়িত্ব দিতে চলেছে।সাউথ সিটি মল কর্তৃপক্ষের দাবি এবার থেকে তারা মল কর্মীদের সংবেদনশিলতাকে গুরুত্ব দেবে।এক্ষেত্রে সাউথসিটি মল কর্তৃপক্ষকে কয়েকটি প্রশ্ন করাই যায়,যেদিন ঘটনাটি ঘটে সেদিন প্রথমে মলের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকরা ঐ মল কর্মীর আচরণকে সমর্থন করেছিলেন,ঐ সাধারণ কর্মীটি যদি বরখাস্ত হন তাহলে কোন যুক্তিতে সেই সব আধিকারিকরা শাস্তি এড়িয়ে যাবেন?মলের মধ্যে কোথাও স্তন্যদানের আলাদা জায়গা নেই,এটা সত্য,এর দায় কার ঐ মলের সাধারণ কর্মীটির, নাকি মল কর্তৃপক্ষের?তাহলে মল কর্তৃপক্ষ কোন দায় নেবেন না কেন?মিডিয়ার খবর খেকে জানা যাচ্ছে মলের এক আধিকারিক জানিয়ে দিয়েছেন বিষয়টি ক্লোজড চ্যাপ্টার কারণ তাাঁরা নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন।বাঃ! তারা ক্ষমা চেয়ে পার পেয়ে যাবেন আর ঐ মলের সাধারণ মাস মাইনের এক কর্মী মল কর্তৃপক্ষের সংবেদন শূন্য নিয়ম পালন করতে গিয়ে চাকরি খোয়াবে,সংবেদনশিলতার কী দারুন দৃষ্টান্ত তাই না!

আমাদের তো বরং মনে হয় ঐ মল কর্মীর আচরণের মধ্য দিয়ে এ শহরের এক অ আলোচিত সমস্যা সামনে চলে এসেছে,যে বিষয়টি নিয়ে কেউ ভাবেন নি সেই বিষয়ের উপর আলো পড়েছে।উচিত ছিল সমস্যাটাকে মেনে নিয়ে নতুন করে ভাবা,তা না করে মল কর্তৃপক্ষ যে ভাবে সাধারণ কর্মীকে ছাঁটাই করে,এজেন্সি বদল করে সংবেদনশিলতার পাঠ দেবার নামে নিজেদের দায় ঝেড়ে ফেলতে চাইছে তাতে মনে হয় সমস্যাটাকে তারা ধামাচাপাই দিতে চায়।সংস্থার কর্মীর প্রতি যারা সংবেদনশীল নয় তারা সাধারণ মানুষকে সংবেদনশীল হওয়ার পাঠ দিতে চাইলে,সেটা যে মেকি আর নাটক সর্বস্ব বলেই মনে হয় তাতে আর আশ্চর্য কী।আর মল কর্তৃপক্ষ তো ব্যবসা করে,ব্যবসায়ীক বুদ্ধি ও সংবেদনশিলতা যে হাত ধরাধরি করে চলে না তা তো বার বার প্রমাণিত হয়েছে।তাই ঐ সাধারণ মল কর্মীর ছাঁটাই হওয়াটা হয়তো অবধারিতই ছিল!!

,