আমাজনদের নিয়ন্ত্রণ করার কথা এত দেরিতে মনে পড়ল কেন্দ্রের?

ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম আমাজন ও ফ্লিপকার্টের ছাড়ের যুগ কি শেষ হতে চলেছে। কেন্দ্রের জারি করা নতুন ইকমার্স খসড়া ্ অনুযায়ী এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের একাংশের। প্রস্তাবিত নিয়ম অনুযায়ী কোন ই কমার্স প্ল্যাটফর্ম  ১ ফেব্রুয়ারি থেকে আর কোন একক সংস্থার পণ্য ২৫ শতাংশের বেশি বিক্রি করতে পারবে না। তাছাড়া নতু নিয়ম অনুযায়ী কোন ই কমার্স প্ল্যাটফর্মে এক্সক্লুসিভ সেল করার বিষয়টা আর থাকবে না। আমাজন সব থেকে বেশি বিক্রি করে ক্লাউডটেল সংস্থার পণ্য।  ক্লাউডটেল হল আমাজন এশিয়া ও নারায়ণমূর্তির সংস্থা ক্যাটামারান ভেনঞ্চার্সের যৌথ সংস্থা। একই অ্যপারিও  রিটেলারও আমাজনেই একমাত্র পণ্য বিক্রি করে থাকে। সেটিও ভারতীয় সংস্থা পাটানির সঙ্গে আমাজনের যৌথ উদ্যোগ।ক্যাশ ব্যাক নীতির ক্ষেত্রেও কিছু বিধি নিষেধ আরোপ করা হয়েছে নতুন নীতিতে। এতদিন আাইনের ফাঁক দিয়ে বিদেশি ইকমার্স সংস্থাগুলো একচেটিয়াভাবে বাজার দখল করে ফেলার পর হঠাত্ তাদের নিয়ন্ত্রণ করার কথা ভাবতে শুরু করেছে সরকার। লোকসভা ভোটের দিকে তাকিয়ে ব্যবসায়ী গোষ্ঠীকে কাছে টানতেই বিজেপির এই উদ্যোগ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাব মহল।এতে ছোট মাঝারি বিক্রেতারা বাঁচবে বলে আশা করলে ভুল হবে। পুঁজির জোরে বিদেশি ইকমার্স সংস্থাগুলি ঠিকই রাস্তা খুঁজে নেবে, মাঝখান থেকে কিছুটা বাড়তি ছাড় যা ক্রেতা এতদিন পাচ্ছিলেন তা  কিছুটা অনিশ্চিত হয়ে পড়ল ।

সূত্র স্ক্রল.ইন