কবে হুশ হবে মেট্রো কর্তৃপক্ষের!

মেট্রোতে বিভ্রাট হয়েই চলেছে।কখোন দরজা বন্ধ না হওয়ার বিভ্রাট,কখোন কারেন্ট চলে যাওয়ার বিভ্রাট,কখোনও বা আবার আচমকা সুরঙ্গে আগুন লেগে যাওয়ার মত বিপত্তি।কেন বার বার ঘুরে ঘুরে আসে মেট্রো বিভ্রাটের এই কাহিনি,কেন কোন সুরাহা হয় না,কেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ বিষয়টির সমাধান করতে আন্তরিক প্রয়াস চালান না?হাঁ,আমরা মনে করছি বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষ আন্তরিক নয়,সেই জন্যই বার বার এই মেট্রো বিভ্রাটের খবর সামনে আসে।আমরা জানতে চাই যে খানে প্রতিদিন কয়েক লক্ষ্য সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তার প্রশ্ন জড়িত,সেখানে দিনের পর দিন কেন এরকম রুটিং মাফিক বিভ্রাট ঘটে যেতে পারে?কেন কর্তৃপক্ষের কোন উদ্বেগ,উতকন্ঠা চোখে পড়ে না?বুধবার যে ভাবে কামরার মধ্যে আগুন লেগে আতঙ্ক ছড়িযেছিল তা থেকে কত বড় দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারতো সে সম্পর্কে কোন ধারনা কী আদৌ আছে মেট্রো কর্তৃপক্ষের! না নেই,নেই বলেই ঘটনার পর তারা দায়সারা বিবৃতি দিয়ে দায়িত্ব সেরেছেন।এ দেশে শুধু মন্ত্রী আর ভিভিআইপিদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে ভাবে প্রশাসন,সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিয়ে কারোর কোন মাথা ব্যথা থাকে না।থাকে না বলেই নানা দুর্ঘটনার কবলে পড়ে পোকা মাকরের মত মারা যেতে থাকে সাধারণ মানুষজন।প্রশাসন-কর্তৃপক্ষ একটু দায়িত্ব সচেতন,একটু সংবেদনশীল হলে হয়তো অনেক দুর্ঘটনা ঘটতোই না।এ দেশে যে ভাবে ট্রেন দুর্ঘটনায় ধারাবাহিকভাবে মানুষ মারা যায় পৃথিবীতে তার দ্বিতীয় উদাহরণ নেই।আর এ রাজ্যে যে ভাবে একের পর এক মেট্রো বিভ্রাট ঘটে চলেছে তাতে আশঙ্কা যে কোন দিন হয়তো বড় কোন ম্যাসাকার ঘটে যেতে পারে।কী জানি হয়তো তারই অপেক্ষায় বসে আছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ,যে দিন বড় দর্ঘটনার বলি হবেন হাজার হাজার মানুষ,যেদিন কান্নার রোল আকাশ বাতাসকে মুখরিত করবে একমাত্র সেদিনই হয়তো ঘুম ভাঙবে সরকারের,প্রশাসনের।তখন তারা মেট্রোর নিরাপত্তা নিয়ে মেট্রো কর্তৃপক্ষকে উদ্যোগ নিতে বলবেন।এ দেশে কৃষকদের যেমন,সাধারণ মানুষকেও তেমনি জীবন দিয়ে সরকারি উদাসীনতার ঘুম ভাঙাতে হয়।তাই ছোটখাট কোন আতঙ্ক,বা উদ্বেগ নয় আসুন, আমরা অপেক্ষা করতে থাকি কবে মেট্রো বিভ্রাট কেড়ে নেয় হাজার হাজার মানুষের জীবন তা দেখার জন্য কারণ তা না হলে মেট্রো কর্তৃপক্ষের ঘুম ভাঙবে না,কোন সরকারি প্রতিনিধি সাধারণ মেট্রো যাত্রীদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার নির্দেশও জারি করবেন না।গো হত্যা নিয়ে গোটা দেশ সরগরম,অথচ সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে বলার কেউ নেই,সত্যি-ই কী বিচিত্র এই দেশ!!!