৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অায়ে লাগবে না কর , সুদে টিডিএসের সীমা বেড়ে ৪০ হাজার

জল্পনা অাগেই ছিল এবার ঘোষণা হল। ২০১৯-২০ অার্থিক বছরে অায়কর ছাড় বাড়িয়ে দিয়ে বছরে ৫ লক্ষ পর্যন্ত নীট অায় কোন অাযকর দিতে হবে না । এটা করা হয়েছে রিবেটের সীমা বাড়িয়ে ১২৫০০ টাকা করে, অায়করের স্ল্যাব অপরিবর্তীত রেখে। অন্তর্বর্তী বাজেট পেশ করে ঘোষণা পীযূষ গোয়েলের। এর সঙ্গে ৮০ সি ধারায় দেড় লক্ষ টাকা ছাড় যুক্ত করলে বছরে সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অায়ের উপর কোন কর দিতে হবে না নাগরিককে। এর সঙ্গে স্বাস্থ্য বিমা, শিক্ষা ঋণের উপর ছাড় যুক্ত করলে ছাড়ের সীমা অারো বাড়বে বলে ঘোষণা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর। এর সঙ্গে স্ট্যান্ডার্ড ডিডেকসনের সীমা ৪০ হাজার থেকে বেড়ে ৫০ হাজার টাকা করায় ৭ থেকে সাড়ে সাত লক্ষ টাকা পর্যন্ত অায়ের ব্যক্তিদের কোন অায়কর ২০১৯ -২০ অার্থিক বছরে দিতে হবে না। যদিও কার কাঠামো অপরিবর্তীত রাখা হয়েছে এবারের বাজেটে। ফলে অায়কর ছাড়ের রিবেট যদি উঠে যায় বা কমান হয় তাহলে এই ৫ লক্ষ টাকার সীমাও কমে যেতে পারে। এবারের বাজেটে ব্যাঙ্ক বা পোস্ট অফিসের জমা টাকার সুদের উপর টিডিএস কাটার সীমা ১০ হাজার থেকে বেড়ে ৪০০০০ টাকা পর্যন্ত করার কথা ঘোষণা করেছেন পীযূষ গোয়েল। সাড়ে ৩ কোটি মধ্যবিত্ত অায়কর দাতার দিকে লক্ষ রেখেই ভোটের অাগেই এই ঘোষণায় বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

অায়কর ছাড়ে ঊর্ধবসীমা না বাড়িয়ে কী করে বছরে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত অায়ে কর লাগবে না?

ধরুন কোন ব্যক্তির বছরে অায় সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা। ৮০সি ধারায় ছাড়যোগ্য বিনিযোগ দেড় লক্ষ টাকা। তাহলে ২০১৯-২০ অার্থিক বছরে তার অায়কর( সেস ছাড়া) হয় অাড়াই লক্ষ টাকার ৫ শতাংশ, অর্থাত্ ১২৫০০ টাকা( অাগে ছিল ২৫০০ টাকা)। এবারের বাজেটে অায়কর বিরেট ঘোষণা করা হয়েছে ১২৫০০। তাই তাকে কর দিতে হবে না। এছাড়া মেডিক্লেম ও এডেকেশন লোনের উপরও ছাড় যোগ করলে ৭ লক্ষ টাকার কাছাকাছি অায়ের ব্যক্তি অাগামী অর্থ বর্ষে কোন কর দিতে হবে না।