মিডিয়া কর্মী পরিচয় দিয়ে জাল প্যান ও অাধার দাখিল করে ৪০ হাজার টাকার মোবাইল কেনার প্রতারণা

অাধার প্যান কার্ডের তথ্যে কি অাদৌ সুরক্ষিত । এই প্রশ্নে যখন গোটা দেশ তোলপাড় ঠিক সেই সময় অাধার – প্যান কার্ড জাল করে ৪০ হাজার টাকা দামের মোবাইল ফোন কেনার বিষয়টি সামনে এলো। সেই সঙ্গে ওই জাল পরিচয়পত্র দিয়ে এসবিঅাই এ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলার বিষয়টিও সামনে অাসে। ফুলবাগান- কাঁকুড়গাছির বাসিন্দা মিডিয়া কর্মী রাজা বিশ্বাসের বাড়িতে মার্চের গোড়ায় হঠাত্ই হানা দেয় বাজার ফিনান্সের লোক। সংস্থার দাবি তিনি নাকি মানিকতলার কোন দোকান থেকে গত বছর ২৯ ডিসেম্বর ৩৯ হাজার টাকা দামের একটি মোবাইল কেনার পর ঋণের প্রথম মাসিক কিস্তি দেওয়ার পর অার দিচ্ছেন না। এই কথা শুনে অাকাশ থেকে পড়েন রাজাবাবু। বাজাজ ফিনান্সকে দেওয়া প্রতারক, যিনি নিজেকে রেনবো প্রোডাক্সনে কাজ করতেন বলে দাবি করেছিলেন ( এনই খাসবর), অাধার কার্ড ও প্যান কার্ডের তথ্য মিলিয়ে দেখেন প্রতারকের ছবি দেওয়া প্যান কার্ডের নম্বর বা পিতার নাম তার।তখন বোঝেন যে তার প্যানকার্ডের তথ্য জাল করে ওই প্রতারক নিজেকে রাজা বিশ্বাস পরিচয় দিয়ে জাল অাধারকার্ড ও প্যান কার্ড ব্যবহার করে বাজাজ ফিনান্স থেকে ঋণ নিয়েছেন। সঙ্গে সঙ্গে থানায় জানালে তার দায নিতে অস্বীকার করে। অবশেষে ২ মার্চ লালবাজারের সাইবার পুলিস স্টেশনে অভিযোগ নথিভুক্ত করেন রাজা বিশ্বাস। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এই প্রতারণার বিষয় পুলিসের তরফে কোন ব্যবস্থা নেওয়ার কথা রাজাবাবুকে জানান হয়নি।