রাজ্যে শেষ দফার ভোটেও হিংসার ছবি

0
3

কমিশন দাবি করেছিল এ রাজ্যে শেষ দফার ভোট শান্তিপূর্ণ রাখতে ষাবতীয় ব্যবস্থা রাখা হবে।কার্যত দেখা গেল নির্বাচন কমিশনের সেই দাবিকে উল্টে দিয়ে এ রাজ্যে শেষ দফার ভোটেও জায়গায় জায়গায় হিংসা ও জুলুমবাজি চলেছে।যাদবপুরে বিজেপির প্রর্থীর গাড়ি ভাঙচুড় করা হয়েছে,আক্রান্ত হওয়ার অভিযোগ করেছেন স্বয়ং বিজেপি প্রার্থী অনুপম হাজরা নিজেই।এই কেন্দ্রেই সিপিআইএম প্রার্থী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্যকে ঘিরে বিক্ষোভের অভিযোগ উযেছে ভাঙড়ে।বুথ দখল ও ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ এসেছে এই পর্যায়ের প্রতিটি কেন্দ্র থেকেই।সংঘর্ষ ও মারামারির খবর পাওয়া গেছে বারাসাত,কাঁকিনাড়া,জয়নগর,ডায়মন্ডহারবার সহ একাধিক জায়গা থেকে।নির্বাচন কমিশন নিযুক্ত সেনা কর্মীদের বিরুদ্ধে এ রাজ্যের শাসক বিরোধী দল গুলো যেমন নিঃস্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছে,তেমনি আবার রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল সেনার বিরুদ্ধে বিজেপির এজেন্ট হয়ে কাজ করার অভিযোগে সরব হয়েছে।রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নিজেই সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বিজেপির হয়ে অত্যাচার করার অভিযোগে সেচ্চার হয়েছেন।সংসদীয় দল গুলি কেন নিজেদের তৈরি প্রতিষ্ঠান ও বাহিনীর উপর আস্থা রাখতে পারে না,সে প্রশ্ন অবশ্য কেউই তোলে না।নির্বাচন কমিশনের হিসেব বলছে এ রাজ্যের ৯টি কেন্দ্রে বিকেল চারটে পর্যন্ত গড়ে ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে।কমিশন যথারীতি সব হিংসার ঘটনাকে বিক্ষিপ্ত ঘটনা বলে বেশী ভোট পড়াকেই গণতন্ত্রের জয় বলে অভিহিত করেছে।