গড়চিড়োলিতে মাও হামলায় নিহত ১৫ পুলিস, গত বছর ৪৮ ঘন্টায় ৪৭জন মাওবাদী নিহত হওয়ার বদলা?

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ মহারাষ্ট্রের গড়চিড়োলিতে পুলিসের গাড়িতে মাওবাদীদের করা IED বিস্ফোরণে নিহত হলেন অন্তত c-60 কমান্ডো বাহিনীর অন্তত ১৫জন জওয়ান ও ১জন গাড়ি চালক। ওই অঞ্চলে রাস্তা তৈরির জন্য ব্যবহৃত ৩৫টি গাড়ি ও ডাম্পার জ্বালিয়ে দেয় সন্দেহভাজন মাওবাদীরা।এর পরই ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দেয় মাও দমনে বিশেষভাবে গঠিত c-60 কমান্ডোবাহিনী। রাস্তায় পেতে রাখা IED দিয়ে বিস্ফোরণ ঘটায় মাওবাদীরা। অার তাতেই নিহত হয়েছেন অন্তত ১৬জন পুলিস কর্মী। মহারাষ্ট্রের ডিজিপি সুবোধ জয়সওয়াল জানিয়েছেন এই হামলার কড়া জবাব তারা দেবেন। ঘটনার নিন্দা করেছেন প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও। বিস্ফেরণের কারণ ঠিক কী তা জানা যায়নি এখনও। তবে ওয়াশিংটন পোস্টের এর রিপোর্ট অনুযায়ী এক স্থানীয় পুলিস অফিসার জানিয়েছেন গত বছর ২২-২৩ এপ্রিল গড়চিড়োলি ও বিজাপুরে মাওবাদী ও অাদিবাসীদের মিলিয়ে মোট ৩৭ জন মাওবাদী হত্যার বদলাও এটা হতে পারে ( ৪৭জনকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছিল নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে)। কাঠগড়ায় ছিল c-60 কমান্ডো বাহিনীও। তাছাড়া কয়েকদিন অাগে ওই অঞ্চলে ২ মাওবাদী নেত্রীও পুলিসের গুলিতে নিহত হন। যাদের মধ্যে একজন ডিভিশনাল কমিটির ( মাওবাদী কাঠামোয় রাজ্য কমিটি)সদস্য। এই দুটি ঘটনার সঙ্গে এই হামলার কোন যোগ অাছে কিনা তা স্পষ্ট নয়।