‘গণতন্ত্রের সাধনাতে’ও হিংসা ও সন্ত্রাস হচ্ছে মানছেন গণতন্ত্রের কুশিলবরাই

দেশ জুড়ে চলতে থাকা গণতন্ত্রের ‘উতসবের মধ্যে’ই যে হিংসা আর খুনোখুনির নানা অংক চলছে তা স্বীকার করে নিচ্ছেন ‘অহিংস’ রাজনীতির কুশীলবরাই।এ রাজ্যের দাপুটে মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক অভিযোগ করেছেন তাঁকে খুন করবার ষড়যন্ত্র শুরু করেছে বিজেপি।মন্ত্রী মশাইয়ের আর অভিযোগ তাঁকে হত্যা করতে বাইরে থেকে বহিরাগত আনা হচ্ছে।জ্যোতিপ্রিয়বাবু বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনকে সতর্কও করেছেন।এদিকে ভোটে হিংসা ও সন্ত্রাস বন্ধ করতে নানা রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশনকে একের পর এক অভিযোগ জানিয়ে চলেছে।এ রাজ্যে কোন কোন রাজনীতিককে পুলিশি নজরদারিতে রেখে ভোটের দিন সন্ত্রাস ও হিংসা প্রতিরোধের ব্যবস্থা নিতে দেখা গেছে কমিশনকে।খোদ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ভোটের দিন সন্ত্রাস ও হিংসা ছড়াতে প্ররোচনা দেন তাই তাঁকে নির্বাচনের দিন নজরবন্দি রাখার আবেদন নিয়ে কমিশনে হাজির হয়েছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়।এসব থেকে একটা বিষয় পরিষ্কার গণতন্ত্র যে আর অহিংস-শন্তির পথ ধরে চলে না তা মেনে নিচ্ছেন এই প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকা রাজনীতিকরাও।গণতন্ত্রও যে আসলে ক্ষমতাতন্ত্রই তার জন্য যে হিংসা ও বলপ্রয়োগ অবধারিত তা এতদিনে প্রমাণিত।