হিংসা শুধু ভোটের দিনে হয় না,শুধু এরাজ্যের বিষয়ও নয়

অনেকেই বলেন এরাজ্যে ভোট যা হিংসা হয় দেশের অন্যত্র তা হয় না। ভোটের দিনে হওয়া পেশি শক্তির নিরিক্ষে হয়তো এই পর্যবেক্ষণ কিছুটা হলেও সত্যি। কিন্তু প্রশ্ন উঠছে ভোটের দিনের হিংসা হলে সেটা হিংসা অার সারা বছরের হিংসা হলে সেটা হিংসা নয়? দেশের উত্তরে গোরক্ষার নামে গত ৫ বছর যে হিংসা হল শাসকদলের মদতে সেটা কি হিংসা নয়? এই হিংসা ভোটের জন্য নয় কি? গুজরাট থেকে শুরু করে সর্বত্র দলিতের পিটিয়ে মারা ঘটনা গত ৫ বছরের কাগজ খুললেই চোখে পড়েছে, সেটা হিংসা নয়? এই তো খাস দিল্লিতে এক মহিলা প্রার্থীর বিরুদ্ধে এমন এক অশ্লীল প্রচার পত্র বিলি করা হয়েছে যার জেরে সাংবাদিক বৈঠকে কেঁদেই ফেললেন অাপের প্রার্থী অতশী মারলেনা। এটা কি হিংসা নয়? হিংসা শুধু পেশী শক্তির অাস্ফালনে হয় না। মমতা থেকে মোদি নিজেদের ভাষণে বিভিন্ন সময় যে ঢঙে কথা বলেছেন তাতে বুঝিয়ে দিয়েছেন ২৩ মে এর পর কার্যত তারা অন্যপক্ষকে দেখে নেবেন। এটাও কি একধরনের হিংসাকে উসকে দেওয়া নয়? অনুপ্রবেশের নামে সংখ্যালঘুদের ভয় দেখানো কি হিংসা নয়। টাকা দিয়ে ভোট কেনা কি হিংসা নয়। নেতা নেত্রীদের ভাষণে কুকথা কি হিংসার মাত্রাকে বাড়ায় না? তাই হিংসা শুধু ভোটের দিন হয় না। এদেশে হিংসা চলে সারা বছরে। বিভিন্ন রাজ্যে তার রকম ফের অাছে। এটাই সত্যি একে অস্বীকার করতে পারি অামরা অনেকে তাতে সত্যিটা পাল্টায় না।