এ রাজ্যে সপ্তম দফার প্রার্থীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বার্ষিক আয় অভিষেকের

নির্বাচনী হলফনামায় মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর আয়ের উত্স সম্পর্কে সঠিক তথ্য দেন নি বলে সিপিআইআমের পক্ষে সুজন চক্রবর্তী সাংবাদিক বৈঠক করে অভিযোগ জানিয়েছেন,তাঁরা বিষয়টি নিয়ে আদালতে যাবেন বলেও জানিয়ে রেখেছেন,আর এরই মধ্যে এডিআর ও ওয়েষ্ট বোঙ্গল ইলেকসন ওয়াচের সমীক্ষা থেকে জানা যাচ্ছে এ রাজ্যে ১৯ তারিখ যে সপ্তম দফার নির্বাচন হতে যাচ্ছে তাতে যে ১১১জন প্রার্থী প্রতিদ্বব্দ্বিতা করছেন তাদের মধ্যে বার্ষিক আয় সবচেয়ে বেশী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়েরই।তাঁর বার্ষিক আয় ২কোটি ২৭ লক্ষ টাকা। এরপরে রয়েছেন সিপিআইএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য তাঁর বার্ষিক আয় ১কোটির কিছু বেশি।এরপর রয়েছেন কংগ্রেস প্রার্থী মিতা চক্রবর্তী।অভিষেক ২০১৪ সালে যে হলফনামা জমা দিয়েছিলেন তাতে তাঁর বার্ষিক আয় দেখানো হয়েছিল ৭৬ লক্ষ টাকার কিছু বেশী।গত পাঁচ বছরে তাঁর আয় এতটা বাড়ল কী ভাবে তাঁর ব্যাখ্যা অবশ্য হলফনামায় নেই বলেই জানিয়েছেন ওয়েষ্টবেঙ্গল ইলেকসন ওয়াচের কর্তাব্যক্তিরা।নির্বাচনী হলফনামা পর্যালোচনা করে এই তথ্য হাজির করেছে ওয়েষ্ট বেঙ্গল ইলেকসন ওয়াচ ও এডিআর।তবে গচ্ছিত সম্পত্তির নিরিখে এ রাজ্যে সপ্তম দফায় সবচেয়ে ধনি প্রার্থী কংগ্রেসের মিতা চক্রবর্তী,তাঁর সম্পত্তির আর্থিক পরিমাণ প্রায় ৪৪কোটি বলে জানা যাচ্ছে।