কমিশনের একতরফা সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠছে প্রশ্ন

নির্বাচন কমিশন যে ভাবে একতরফা সিদ্ধান্ত নিচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে,উঠছে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও।বুধবার কমিশন যে ভাবে এ রাজ্যে ভোটের প্রচার সীমা একদিন কমিয়ে দেওয়ার ঘোষণা করেছে তা একদিকে যেমন নজিরবিহীন অন্যদিকে তেমনি এর পেছনে বিজেপির মদত আছে বলেও অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে।কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বার বার অভিযোগ করছেন কমিশন বিজেপিকে অনেক বিষয়ে ছাড় দিচ্ছে।পুলওয়ামার ঘটনাকে বিজেপি নির্বাচনী প্রচারে ব্যবহার করা সত্ত্বেও ছাড় দেওয়া হচ্ছে অথচ অন্যদের জবাব চাওয়া হচ্ছে।এ রাজ্যে যে ভাবে রাজ্য সরকারের সঙ্গে কোন আলোচনা না করেই কমিশন পুলিশ আধিকারিকদের বদল করা ও অন্যান্য সিদ্দান্ত নিয়েছে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।বুধবারও রাজ্য পুলিশের সিআইডির দায়িত্বে থাকা রাজীবকুমারকে রাজ্য থেকে সরিয়ে দিল্লিতে নিয়ে যাওয়ার নির্দেশ জারি করেছে কমিশন।মুখ্যমন্ত্রী কমিসনকে বিজেপির কথা শুনে চলছে বলে অভিযোগ জানিয়ে রেখেছেন।