সভ্যসাচীকে নিয়ে নতুন কৌশল সাজাতে শুরু করলেন মুকুল রায়

বিধাননগরের মেয়র সভ্যসাচীকে সামনে রেখে রাজ্যের শাসক দলকে অস্বস্তিতে ফেলার নতুন কৌশল শুরু করে দিলেন,ইদানিং বাংলার রাজনীতির চানক্য বলে স্বীকৃত মুকুল রায়।সভ্যসাচী দত্তের একের পর আচরণ ও কথায় বিরক্ত তৃণমূল নেতৃত্ব মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে সভ্যসাচীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার উদ্যোগ শুরু করেছে।রবিবার পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বিধাননগরের কাউস্নিলারদের নিয়ে বৈঠক করেন,সেই বৈঠকে ডাক পান নি মেয়র সভ্যসাচী দত্ত।কাউন্সিলাররা অনেকেই সভ্যসাচীকে মেয়র পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি তোলেন বলে খবর।এই বৈঠকের পর পুরমন্ত্রী জানান আপাতাত বিধাননগরের মেয়রের দায়িত্ব পালন করবেন ডেপুটি মেয়র তাপস চ্যাটার্জি।ফিরহাদ হাকিম আর বলেন সভ্যসাচীর বিরুদ্ধে রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে শৃঙ্খলাভঙ্গ কমিটির কাছে,তাঁরাই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।এর পরেই সভ্যসাচীর হয়ে রাজনীতির মাঠে নেমে পড়েন মুকুল রায়।রবিবার বিকেলে সভ্যসাচীর সঙ্গে এক ভোজন সভায় উপস্থিত হয়ে মুকুলবাবু বলেন,তৃণমূলের শৃঙ্খলা কমিটি খায় না মাখায় দেয় তা তিনি জানেন না,তবে পুরসভার পরিষেবায় মেয়র ব্যর্থ না সফল তা বিচার করার দায়িত্ব গুটিকয়েক কাউন্সিলার নিতে পারেন না,সেটা বিচারের দায়িত্ব পুর এলাকার মানুষজনদের।এক্ষেত্রে সভ্যসাচী পুরপরিষেবা সঠিকভাবেই দিচ্ছেন বলে মুকুলবাবুর মত।এদিন মুকুল রায় জানিয়ে দেন মেয়রকে ইচ্ছে করলেই সরিয়ে দেওয়া যায় না,তার জন্য পুরসভায় অনাস্থা প্রস্তাব আনতে হয়,আইন অনুযায়ী সবকিছু হতে হয়।মুকুলবাবু কটাক্ষের সুরে বলেন শাসক দল সাংবিধানিক আইন-কানুন ভুলে যাচ্ছে,তাদের আইনটা মানতে হবে।এদিনের ভোজ সভায় বেশ কয়েকজন আইননজ্ঞও উপস্থিত ছিলেন।সভ্যসাচী দত্তকে নিজের ‘ছোট ভাই’ আখ্যা দিয়ে মুকুল রায় জানান তিনি ওকে পরামর্শ দিয়েছেন।সভ্যসাচী দত্ত বিজেপিতে যাচ্ছেন কিনা জানতে চাইলে মুকুল রায় বলেন সভ্যসাচী আবেদন করলে ভেবে দেখবেন,তবে এখন মেয়র পদ থেকে যাতে ওকে না সরাতে পারে সে জন্য পরামর্শ দিতেই এসেছেন বলে মুকুল রায়ের দাবি।অনেকেই মনে করছেন বিধাননগর পুরসভা দখল করাই মুকুল রায়ের লক্ষ্য,সেই জন্যই সভ্যসাচীকে সামনে রেখে কৌশল করছেন তিনি।এই কারণেই মুকুল রায়ের দাবি পুরসভায় অনাস্থা প্রস্তাব এনে সভ্যসাচী দত্তকে সরানোর চেষ্টা করুক তৃণমূল।অনেক কাউন্সিলারই সেক্ষেত্রে সভ্যসাচীর সঙ্গে থাকবে বলে অনেকের অনুমান,সভ্যসাচীকে সামনে রেখে দলভাঙিয়ে বিধাননগর পুরসভার দখল নিতে কৌশল সাজিয়ে ফেলেছেন কী মুকুল রায়?খুব তাড়াতাড়ি এ প্রশ্নের উত্তর মিলবে বলেই মনে হচ্ছে।