শুধু এরাজ্যের চিটফান্ড নিয়ে ED-CBI এত সক্রিয় কেন?

সারদা চিটফান্ড তদন্ত সম্প্রতি ফের সক্রিয় ইডি ও সিবিঅাই। এবার তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়, প্রাক্তন সাংসদ কুনাল ঘোষ , ইস্টবেঙ্গল কর্তা দেবব্রত সরকার সহ মোট ৬জনকে তলব করেছে ইডি। সারদা কেলেঙ্কারির জেরে শতাব্দী ছাড়া সকলেই অাগে গ্রেফতার হয়েছেন। প্রশ্ন উঠছে হঠাত্ মাঝে মধ্যে কেন্দ্রীয় এজিন্সি শুধু মাত্র এরাজ্যের ২ টি চিটফান্ডের তদন্তে সক্রিয় হয়ে উঠছে কেন? কেন ৫০ হাজার কোটি টাকা PACL চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে সেরকম সক্রিয় নয় সিবিঅাই বা ইড়ি? কেন ৫০ হাজার কোটি টাকার PACL কেলেঙ্কারি বা ২৪ হাজার কোটি টাকার সাহারা কেলেঙ্কারির তদন্তে কোন রাজনৈতিক নেতাকে গ্রেফতার করল না সিবিঅাই বা ইডি? এত বড় কেলেঙ্কারি কি রাজনৈতিক অাশ্রয় বা প্রশ্রয় ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে চলা সম্ভব ছিল? এরাজ্যের তৃণমূল নেতারা চিটফান্ড কেলেঙ্কারি বা নারদায় যুক্ত ছিলেন না এ দাবি করা যেমন সঠীক হবে না তেমনই সারা দেশে চিটফান্ড কেলেঙ্কারি, হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাঙ্ক কেলেঙ্কারিতে একজন রাজনৈতিক নেতাকেও সিবিঅাই -ইডি জেরা বা গ্রেফতার না করায় তাদের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠা কি অন্যায়?

,