৩৭০ ধারা খারিজের পর রাজ্য হিসাবেও জম্মু- কাশ্মীর অস্তিত্বহীন

0
11

রাজ্য হিসাবে জম্মু কাশ্মীরের অার অস্তীত্ব রইল না। রাজ্যসভার পর লোকসভাতেও পাশ হয়ে গেল জম্মু কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল। লোকসভায় ৩৫১জন বিলের পক্ষে ভোট দেন। বিপক্ষে ভোট পড়ে ৭২টি।এদিন ভোটের অাগে ওয়াকঅাউট করে এনসিপি ও তৃণমূল।কাশ্মীরের বিশেষ মর্যদাপ্রদানকারী ৩৭০ ধারা খারিজের বিলে পক্ষে ভোট পড়ে ৩৭০টি। বিপক্ষে ভোট৭০টি।

সোমবারই রাজ্যসভায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংবিধানের ৩৭০ ধারা খারিজের সরকারি সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন। এবং বিদ্যুতের গতিতে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তে সোমবারই সিলমোহর লাগিয়ে দেন রাষ্ট্রপতি। অমিত শাহের ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে রাজ্যসভায় হৈ হট্টোগোল বাঁধিয়ে দেন বিরোধীরা।কিন্তু সরকার এতেই না দমে জম্মু কাশ্মীরকে পুনর্গঠনের যে পরিকল্পনা সরকার করছে তাও জানান অমিত শাহ। কেন্দ্রের পরিকল্পনা অনুযাযী অাইনসভাসহ জম্মু কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করল সরকার। অন্যদিকে অাইনসভা ছাড়াই লাদাক পরিণত হল কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল । এখন শুধুই রাষ্ট্রপতির অানুষ্ঠানিক সিলমোহরের অপেক্ষা।রাজ্য হিসাবে অার অস্তিত্ব রইল না জম্মু কাশ্মীরের।

বিজেপি তার জন্মলগ্ন থেকে সংবিধানের ৩৭০ ধারা খারিজের কথা বলে অাসছিল। এদিন তা করে দেখাল তারা।এর ফলে ভারতের সঙ্গে জম্মু কাশ্মীরের সংযুক্তির সময় যে প্রতিশ্রুতি ও সাংবিধানিক সংস্থান ছিল তা অার রইল না। ৩৭০ ধারা বলে কিছু বিশেষ মর্যদা ও অধিকার ছিল জম্মু কাশ্মীরের। বিজেপির ভোট ব্যাঙ্কে এর সুফল মিলবে বলে মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা। তবে একে ভারতীয় গণতন্ত্রের ইতিহাসে কালাদিন বলে অাখ্যা দিয়েছেন কিছুদিন অাগে পর্যন্ত বিজেপির সঙ্গে জোট করে সরকার গড়া প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহেবুবা মুফতি। কংগ্রেসর তরফে গুলাম নবী অাজাদ অভিযোগ করেছেন ৩৭০ ধারা খারিজ করে সংবিধান ও গণতন্ত্রের হত্যা করেছে বিজেপি তথা মোদি সরকার। যদি রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের মতে দীর্ঘদিন ধরে ৩৭০ ধারাকে লঘু করে দিয়েছে কংগ্রেসের সরকারও। ফলে উপত্যকার মানষের দিল্লির সঙ্গে বেড়েছে বিচ্ছিন্নতা। উগ্র জাতীয়তাবাদকে ভিত্তি করে নিজেদের শাসনকে অারো কেন্দ্রীভূত করতে অমিতশাহ -নরেন্দ্র মোদি জুটি ৩৭০ ধারাকে খারিজ করার পথে হাঁটলেন। দেশের অার্থিক অবস্থা যখন বেহাল, কর্মসংস্থানের অবস্থা শোচনীয় সেই সময় এরকম পদক্ষেপ বিজেপির থেকে প্রত্যাশিত বলেই তাদের মত। এখন দেখার ক্ষমতাকে কেন্দ্রীভুত করতে অার কী কী করেন অমিত শাহ নরেন্দ্র মোদি জুটি।

কয়েকদিনেক মধ্যে কেন্দ্রের তরফে ৩৫ হাজার নিরাপত্তারক্ষী মোতায়েত করা হয়েছে জম্মু কাশ্মীরে। সংবিধানের ৩৭০ ধারা খারিজের ঘোষণার পর অারো ৮ হাজার সিঅারপি জওয়ানকে বিমান করে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হল জম্মু কাশ্মীরে। বেসরকারি মতে অাগে থেকে সাড়ে ৬ লক্ষের বেশি সেনা অাধাসেনা মোতায়েন করা হয়েছে জম্মু কাশ্মীরে। এককথায় অবরুদ্ধ জম্মু কাশ্মীর।