ডেঙ্গি নিয়ে দিদিকে অারো সক্রিয় হতে বলছি

উত্তর ২৪ পরগণার দেগঙ্গা, হাবড়া, ব্যারাকপুরের একটা অংশ সহ জেলার বিস্তীর্ণ অঞ্চলে এখন ডেঙ্গির প্রকোপ দেখা দিয়েছে । সঠিক মৃত্যুর সংখ্যা সরকারের তরফে বলা না হলেও বেসরকারি মতে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গিতে অাক্রান্ত হয়ে ১৫জনের মৃত্যু হয়েছিল। গত বছর শুধুমাত্রা দেগঙ্গাতেই ডেঙ্গিতে মৃত্যু হয়েছিল শতাধিক। তার পরও রাজ্য সরকারের তরফে অাগাম কোন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। সূত্রের খবর উত্তর ২৪ পরগণা জেলা শাসক ডেঙ্গি মোকাবিলায় প্রায় এক কোটি টাকার অার্থিক সাহায্য রাজ্য সরকারের কাছে চেয়েছেন। এর মধ্যে ৩ মাসের জন্য ডেঙ্গি মোকাবেলায় বেশ কয়েকশ অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের বিষয়টিও রয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের তরফে বেশ কয়েকজন চিকিত্সককে জেলা ডেঙ্গির চিকিত্সার জন্য পাঠান হয়েছে।

অনেকগুলো প্রাণ চলে যাওয়ার পর রাজ্য সরকার তথা স্বাস্থ্য দফতরের টনক নড়েছে। কিন্তু প্রতিবছর এই বর্ষার সময় রাজ্যে ডেঙ্গি দেখা দেয়। অকালে চলে যান বহু মানুষ। তাহলে কেন সারা বছর ডেঙ্গি মোকাবিলায় সরকার পদক্ষেপ নেবে না। টেলিভিশন তারকাদের দিয়ে বিজ্ঞাপন দিলেই কি সরকারের দায় শেষ। এই নিয়ে পতঙ্গ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে সরকার কোন বৈঠক অাজ পর্যন্ত করেছে কি রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ডেঙ্গি মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের কোন কর্মসূচী অাছে কি একটি জেলায় ডেঙ্গি মোকাবিলায় অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের সরকারের পদক্ষেপ থেকেই স্পষ্ট বিষয়টিতে তারা এ্যাডহক ভিত্তিতে সমাধান করতে চাইছে। সেই সঙ্গে রক্তে এনএস ১ পজিটিভি হলে ডেঙ্গু লেখা যাবে না এই ফতেয়া জারি করে ডেঙ্গির খবর চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

ডেঙ্গি মোকাবিলায় সারা বছর সরকার পদক্ষেপ নিক। মেলা খেলায় খরচ না করে এই খাতে অারো টাকা বরাদ্দ করুক সরকার। দিদিকে বলছি ডেঙ্গি প্রতিরোধে সরকারকে অারো সক্রিয় করুন। কারণ জনসারণের প্রাণেরও মূল্য অাছে।