বহুদলীয় সংসদীয় ব্যবস্থায় অমিত শাহের অাপত্তি কেন?

0
24
AMIT SHA

মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও শাসকদলের  নম্বর টু নেতা অমিত শাহ বলেছেন বহুদলীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা জনগণকে হতাশ করেছে। এক সময় এরজন্য সব মন্ত্রী নিজেকে প্রধানমন্ত্রী ভাবতেন। দেশে নীতির অসাড়তা এসে গিয়েছিল এরজন্যই। অমিত শাহের এই মন্তব্যে দেশের রাজনৈতিক মহল এখন তোলপাড়। বিরোধীদের পক্ষ থেকে অমিত শাহের এই মন্তব্যকে বহুত্ববাদের বিপক্ষে বলে মন্তব্য করা হয়েছে। কিন্তু কেন অমিত শাহ এরকম মন্তব্য করতে গেলেন?

  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ দেশের শাসন ব্যবস্থাকে ক্রমশ কেন্দ্রীয়করণের পক্ষে কথা বলে চলেছেন। শুধু কথা নয়, ধীরে হলেও পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছেন। জিএসটি দিয়ে শুরু। ৩৭০ খারিজ করে অঙ্গ রাজ্যের বিশেষ অধিকার থাকার প্রয়োজনীয়তা নেই বলেই তারা অাইনত প্রমাণ করে দিয়েছেন।এখন হিন্দিকে জাতীয় ভাষা করার তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যেই সারা দেশে বিধানসভা ও লোকসভার ভোট একসঙ্গে করানোর ভাবনা ভাসিয়ে দিয়েছেন। অনেক সময় অ্যাডভাইসরির নামে  রাজ্যের বিষয় নাক গলাচ্ছে কেন্দ্র। (এরাজ্যে শাসকদলের একাধিক নেতাই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা নিয়ে ঘোরেন। অথচ অাইন শৃঙ্খলা রাজ্যের বিষয়।)।সমস্ত সাংবিধানিক সংস্থাগুলির নিরপেক্ষতা অাজ প্রশ্নের মুখে। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের পেশাদাররা চাকরি ছাড়তে বাধ্য হচ্ছেন। কারণ তারা কেন্দ্রের নির্দেশ মেনে নিতে পারছেন না।সব মিলিয়ে দেশ রাষ্ট্রপতি কেন্দ্রিক ব্যবস্থার দিকে নিয়ে যেতে চাইছে  বিজেপি। অন্তত এমনটাই মত রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশের। তাই বহুদলীয় ব্যবস্থা নিয়ে অমিত শাহের বিরক্তির যথেষ্ট কারণ রয়েছে।