ভিমা করেগাঁও মামলার জেরে দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকের বাড়িতে তল্লাশি

0
18

ভিমা করেগাঁও মামলার জেরে নয়ডায় দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজির অধ্যাপক হেনি বাবুর বাড়িতে তল্লাশি চালাল পুণে পুলিস। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টা নাগাদ পুলিস তাদের বাড়িতে সার্চ ওয়ারেন্ট ছাড়াই তল্লাসি চালায় বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ করেছেন হেনির স্ত্রী জেনি রোয়েন। জেনির অভিযোগ পুলিস তাদের জানায ভিমা করেগাঁও এর ঘটনায় তাঁর স্বামীর যোগ রয়েছে। ৬ ঘন্টা ধরে তল্লাশি চালিয়ে ৩টি বই, ল্যাপটপ, পেনড্রাইভ, ফোন ও হার্ড ডিস্ক নিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছেন জেনি।

 কোরেগাঁও ভিমা যুদ্ধের ২০০ বছরপূর্তিতে ( ব্রাহ্মণ পেশোয়ারের বিরুদ্ধে দলিত মাহারদের বিজয়)  ২০১৭ সালে  ৩১ ডিসেম্বর পুণেতে এলগার পরিষদের সভা করে। অভিযোগ এই সভায় উত্তেজক ভাষণের জেরে পরের  দিন করেগাঁও ভিমা গ্রামে  জাতি হিংসা হয়। এর সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে  হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের ২ নেতা শামবাজি বিডে ও মিলান্দ একবোটের বিরুদ্ধে পুলিস তেমন সক্রিয় না হলেও  ‍ওই ঘটনার ৬ মাস পর থেকে ২ দফায় প্রায় ১ডজন মানবাধিকার কর্মীকে গ্রেফতার করে জেলে পুড়ে রেখেছে। সুধা ভরদ্বাজ, সুরিন্দর গাডলিং এর মত অাইনজীবীর পাশাপাশি অধ্যাপক সোমা সেন, কবি ভারভারা রাও,সুধীর ধাওলে, রোনা উইলসন, মহেশ রাউত, ভেরনন গঞ্জালভেস, অরুন ফেরেরাদের জামিন না দিয়ে জেলে রেখে দেওয়া নিয়ে সরব হয়েছে বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনও বিশিষ্ট জনেরা।