যাদবপুর নিয়ে সুর বদল এসএফআই এর, প্রথমে দায় এড়ালেও এখন বিক্ষোভের সমর্থনেই সংগঠন

0
49

রাজ্য বাম নেতৃত্ব  যাদবপুরের ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক বললেও এসএফআই তার অবস্থান পরিবর্তন করেছে। প্রথমে যাদবপুরের বিক্ষোভের সঙ্গে সংগঠনের কোন যোগ নেই বলে ‌টেলিভিশন  চ্যানেলে ফোন ইন দেন এসএফঅাই এর রাজ্যস্তরের এক নেতা। পরে ছাত্রদের মনোভাব বুঝতে পেরে সুর বদল করেছে এসএফঅাই। এখন যাদবপুরে প্রতিবাদের পক্ষেই অবস্থান নিচ্ছে।শুক্রবার এসএফআই যাদবপুরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় যাদবপুরে গিয়ে প্ররোচনা তৈরি করে গন্ডগোল বাঁঁধিয়েছে এই অভিযোগ তুলে ঢাকুরিয়া থেকে যাদবপুর ক্যাম্পাস পর্যন্ত মিছিলও করে।এসএফআই এই ইস্যুতে যাদবপুরের লড়াকু পড়ুয়াদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে স্লোগান দিতে থাকে।বৃহস্পতিবার সিপিএমের একসময়কার ছাত্র নেতা ও এখন পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন,যে কোন ব্যক্তি যে কোন জায়গায় গিয়ে তার বক্তব্য রাখতে পারেন সেটা তার গণতান্ত্রিক অধিকারের মধ্যে পরে।যাদবপুরে বিজেপিকে অযথা প্রচার দেওয়া হচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন সুজন চক্রবর্তী।এর পরেই তিনি বলেন যাদবপুরের ঘটনা একেবারেই দুর্ভাগ্যজনক।

তবে শুক্রবার যাদবপুরের এসএফআই নেতৃত্ব কিন্তু পরিষ্কার করে দেন বাবুল সুপ্রিয়কে ঘিরে যে বিক্ষোভ দেখানোর কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল তা একেবারে যুক্তিযুক্ত। যারা অংখ্য মানুষকে বেনাগরিক করে দেয়,যারা মানুষে মানুষে বিভেদ তৈরি করে তাদের বিরুদ্ধে যে কোন জায়গাতেই ছত্ররা আওয়াজ তুলবেই।কেন যাদবপুরে বিদ্বেষ ছড়াতে বাবুল এসেছিলেন সে প্রশ্ন তুলে যাদবপুরের এসএফআই নেতৃত্ব বলেন সভা করার গণতান্ত্রিক অধিকার থাকলে বিক্ষোভ দেখাবার গণতান্ত্রিক অধিকারকেও মানতে হবে।বাবুল বৃহস্পতিবার বিক্ষোভের মুখে পরে প্ররোচনা তৈরি করেন,তিনিই প্রথম ছাত্রদের নিরাপত্তা রক্ষীদের দিয়ে মারধোর করেন।তাই ঘটনার দায় তাকে নিতেই হবে।এদিন এসএফআই যাদবপুরে একত্রিত হয়ে গেরুয়া বাহিনীকে প্রতিরোধের আওয়াজ তোলে।এসএফআই এই দাবিও তোলে বাবুলের উপর আক্রমণকারীদের চিহ্নিত করতে হলে যারা ক্যাম্পাসে ঢুকে তান্ডব চালিয়েছে,আগুন ধরিয়েছে ইউনিযন রূমে তাদেরও চিহ্নিত করতে হবে।এদিন বিজেপির পক্ষ থেকে যাদবপুরে বিজেপি নেতা কর্মী ও সমর্থকদের উপর আক্রমকারীদের বিরুদ্ধে যাদবপুর থানায় এফআইআর দায়ের করেন অগ্নীমিত্রা পল।তার পান্টা ছাত্ররাও অবশ্য ক্যাম্পাসে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আফআইআর দায়ের করে।

 এদিন  ক্যাম্পাসে এবিভিপর তান্ডবের অভিযোগ তুলে যাদবপুরের তিন শাখার পড়ুয়ারা এক বিশাল মিছিল করে। তাদের অভিযোগ বাবুল সুপ্রিয়োর কারণেই এই অশান্তি তৈরি হয়েছে।