অপর্ণা সেন সহ ৪৯জন বিদ্বজনের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা বন্ধ করল বিহার পুলিস

0
21

দেশে তৈরি হওয়া অসহিষ্ণু পরিবেশের বিষয়  উদ্বেগ জানিয়ে দেশের ৪৯জন বিদ্বজনের লেখা প্রধানমন্ত্রীকে  খোলা চিঠির প্রেক্ষিতে দায়ের করা দেশদ্রোহিতার মামলা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল বিহার পুলিস। সেই সঙ্গে মামলাকারী জনৈক অাইনজীবী সুধীর ওঝার বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যমূলক মিথ্যে অভিযোগে মামলা করার জন্য ব্যবস্থা নিতে চলেছে বিহার পুলিস। গত সপ্তাহে অাইনজীবী সুধীর ওঝার দায়ের করা মামলার প্রেক্ষিতে ওই ৪৯জনের বিরুদ্ধে দেশদ্রেোহিতার মামলা রুজু হয়। পরে দেশজুড়ে নিন্দার ঝড় ওঠায় বিষয়টি থেকে দূরত্ব তৈরি করে নেয় বিজেপি ও জেডিইউ। যদি সুধীর ওঝা রামবিলাস পাসওয়ানের দলের সঙ্গে যুক্ত থাকায় বেশ অস্বস্তিতে পড়েছে জোটের নেতারা।

গত জুলাই মাসে দেশে অসহিষ্ণু পরিবেশের প্রেক্ষিতে নিজেদের চিন্তা ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি দেন সমাজের ৪৯জন বিশিষ্ট মানুষ। জয়শ্রীরাম শ্লোগানকে যেভাবে ব্যবহার করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষকে পিটিয়ে মারা হচ্ছে তা বন্ধের জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তারা। এই বিশিষ্টজনের চিঠিতে গণতন্ত্রের বিরোধী স্বরের গুরুত্বকে স্মরণ করিয়েছেন। অারবান নকশাল তকমা দিয়ে জেলে ভর্তি করার ঘটনায় চিন্তা ব্যক্ত করেছেন এই বিদ্বজ্জনেরা। চিঠিতে সই করেছেন অপর্না সেন। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, রামচন্দ্র গুহ, অনুরাগ ক্যশপ, শ্যাম বেনেগাল সহ অনেকে। এই চিঠির পাল্টা হিসাবে ৬১জন বিজেপিপন্থী বিশিষ্টজনেরা ওই ৪৯জনের চিঠি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে গিয়ে অপর্ণা সেনদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু হওয়ায় হইচই শুরু হওয়া পিছু হঠল বিহার সরকার।