ক্যাম্পাসের বিক্ষোভে শহুরে নকশালদের হাত দাবি প্রধানমন্ত্রীর

0
52

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে মানুষ রাস্তায়। দিল্লিতে জামিয়া মিলিয়ায় ছাত্রদের উপর পুলিসের বর্বর হামলার বিরুদ্ধে দেশজুড়ে প্রতিবাদ করছে ছাত্ররা। ঠিক সেই সময় দাঁড়িয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এই বিক্ষোভের জন্য দায়ী করলেন শহুরে নকশালদের। মঙ্গলবার ঝাড়খণ্ডে এক নির্বাচনী প্রচারে মোদি বলেন ক্যাম্পাসে ছাত্রদের উসকিয়ে হিংসা করে মুসলীমদের মনে ভয় তৈরি করতে চাইছে শহুরে নকশালরা। প্রধানমন্ত্রী বলেন ছাত্রদের কাঁধে বন্দুক রেখে এই গেরিলা কায়দা যুদ্ধ বন্ধ করুক শহুরে নকশালরা। মোদির দাবি তাঁর কাছে সংবিধান পবিত্র। সরকারের যে কোন সিদ্ধান্ত নিয়ে তর্ক চলুক তবে তা গণতান্ত্রিক উপায়।

দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী  অমিত শাহ  সংসদে দাঁড়িয়ে শহুরে নকশালদের শেষ করার হুঁশিয়ারি দেন। দেশের এক ডজন সেরা মানবাধিকার কর্মী ও বিদগ্ধ মানুষদের মাও তকমা দিয়ে জেলে পুড়ে রাখা হয়েছে ১ বছরের বেশি সময় ধরে। সেই সরকারের প্রধান যখন নাগরিক বা  পড়ুয়াদের লড়াইকেও মাও তকমা এঁটে দেন তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এখন দেখার এই বিক্ষোভের অজুহাতে   মিথ্যে অভিযোগে  আজ থেকে  ৬ মাস পর কোন কোন শিক্ষক বা মানবাধিকার কর্মীকে দিল্লি বা উত্তরপ্রদেশ পুলিস গ্রেফতার করে !