জুন মাস থেকে শুরু ওয়ান নেশন ওয়ান রেশন কার্ড। কিন্তু কেন?

0
21

প্রতিদিনই নাগরিককে হয় ব্যস্ত রাখতে নয়তো অন্য কোন উদ্দেশ্যে নানা ফরমান জারি করছে সরকার। এবার ওয়ান নেশন ওয়ান রেশন কার্ডের কথা ঘোষণা করলেন  কেন্দ্রীয়মন্ত্রী রাম বিলাস পাসওয়ান। মঙ্গলবার লোকসভায় পাসওয়ান জানান ২০২০ সালের ১ জুন থেকে এই পদ্ধতি সারা দেশে লাগু হবে। পাসওয়ানের দাবি এ ফলে কাজের জন্য বাসস্থান বদল করলেও যেকোন রেশন দোকান থেকেই রেশন তুলতে পারবেন গ্রাহকেরা।

  প্রথমে অাধার, এখন ভোটার অার এর পর রেশন কার্ডে নানা কিছু। এর মাধ্যমে লোকের সুবিধা হবে না লোক বাদ পড়বে সেটাই প্রশ্ন।ইতিমধ্যেই   নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ডে নানা গড়মিল ধরা পড়েছে। নামের বানান ভুল থেকে ঠিকানার গড়মিল। নাজেহাল হচ্ছে গ্রাহক। দায় নিতে নারাজ প্রশাসন। কেউ কেউ একাধিকবার অাবেদন করেও এখনও পর্যন্ত পাননি ডিজিটাল রেশন কার্ড। এর পর অাধার ব্যায়োমেট্রিক যদি না মেলে তাহলে তো হয়েই গেল। তাছাড়া বয়স্ক মানুষদের বায়োমেট্রিক অনেক সময়ই মেলে না। তাহলে সেই দুর্ভোগের কী হবে ভেবে দেখেছেন কি মন্ত্রিমশাই?

FCI এর গুদামে খাদ্য শস্য পচে যায়, গরীবের হাতে তবু পৌঁছয় না।  এখনও বহু এলাকায় প্রতিদিন রেশন দোকানই খোলে না। সেদিকে নজর নেই সরকারের। অথচ রোজ কিভাবে জনসাধরণকে হয়রান করা যায়, ব্যস্ত রাখা যায় তার নানা নির্দেশ রোজই জারি করছে সরকার।অনেকেই বলছেন ওয়ান নেশন ওয়ান রেশন কার্ড অাসলে সংকুচিত রেশন ব্যবস্থাটাকেই অারো সংকুচিত করার মতলব। যাই হোক মানুষের হয়রানি যে বাড়বে তাতে সন্দেহ নেই।