বাবুল সুপ্রিয়কে মন্ত্রিসভা থেকে বরখাস্তের দাবি কেন বিকাশরঞ্জনের?

0
61

সাতদিন ডেস্কঃ-এক মুসলিম ব্যক্তিকে ফেসবুকে যে ভাবে পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় সেটা চরম সংবিধান বিরোধী কাজ বলে মনে করেন বিশিষ্ট আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য।এ বিষয়ে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়ে বিকাশবাবু বলেন,’সাংবিধানের প্রতি অনুগত থাকার শপথ নিয়ে যে মন্ত্রী দেশের এক সাধারণ নাগরিককে এরকম ভাবে আক্রমণ করতে পারেন,রাষ্ট্রপতির অবিলম্বে উচিত তাঁকে মন্ত্রীসভা থেকে বরখাস্ত করা।এই হুমকি সংবিধানকে লঙ্ঘন করেছে।বাবুল সংবিধানের প্রতি অনুগত থাকার শপথকে মান্যতা দেন নি,তাই দেশের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে রাষ্ট্রপতির উচিত বাবুলকে মন্ত্রীসভা থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য সরকারকে পরামর্শ দেওয়া।’বিকাশবাবু জানিয়ে দেন চরম সংবিধান বিরোধী কথা বলায় বাবুলের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া যায়।বিজেপি সরকার যেভাবে একের পর এক নানা কর্মকান্ডের মধ্য দিয়ে সংবিধানকে উপেক্ষা ও নাকোচ করতে চায় বাবুলের এই মন্তব্য তারই আর একটা প্রকাশ বলে মনে করেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য।
প্রসঙ্গত দিন কয়েক আগে এক ফেসবুক বিতর্কে বাবুল সুপ্রিয়কে এক মুসলিম নাগরিক প্রশ্ন করেন তাদের এ রাজ্যের সভাপতি দিলীপ ঘোষ গরুর দুধ থেকে সোনা পাওয়া যায় বলে জানিয়েছিলেন তাঁর ও বাবুলের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে সেই নাগরিক প্রশ্ন করায় বাবুল তার উত্তরে সেই মুসলিম নাগরিককে সরাসরি হুমকি দিয়ে বলেন,’আগে তোমাকে তোমার দেশে ফেরত পাঠাই,তারপর তোমার প্রশ্নের জবাব পোষ্টকার্ডে পাঠাবো।’ বাবুলের এই প্রতিক্রিয়ায় চরম বিতর্ক তৈরি হয়।অনেকেই বাবুলের বক্তব্যের বিরোধিতা করে বলেন একজন মন্ত্রীর এহেন বক্তব্য থেকেই বোঝা যায় মুসলিমদের বিজেপি কী চোখে দেখে।এবার সেই বক্তব্য সরাসরি আমাদের সংবিধান বিরোধী বলে সোচ্চার হলেন সিপিএম নেতা ও আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য।তাঁর মতে সংবিধান মেনে দেশ চালানোর শপথ করে যারা সংবিধানের রীতি অমান্য করছেন তাদের বিরুদ্ধে মানুষকে একজোট বাঁধতে হবে।এদেশের সংবিধান ও তার ঐতিহ্যকে রক্ষা করার জন্যই বিজেপির মত মৌলবাদী ও মুসলিম বিদ্বেষি দলের বিরুদ্ধে লাাগাতার লড়াই প্রয়োজন।বাবুলের কুতসিত ও অশিক্ষিত সাম্প্রদায়িক মন্তব্যের জন্য তাঁকে সামাজিক ভাবে বয়কটের দাবি তোলেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য।