জলঙ্গি সিএএ বিরোধী বনধ ভাঙতে এলোপাথাড়ি গুলি নিহত দুই,অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

0
53

বিধানসভা সরকার পক্ষের অানা প্রস্তাবে NRC NPR CAA এর বিরোধিতা করা হয় সেমাবার। অার তার ৪৮ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই মুর্শিদাবাদের জলঙ্গিতে এনঅারসি, সিএএ এর বিরোধিতায় নাগরিক মঞ্চের ডাকা বনধ ভাঙতে দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত হলেন ১ বৃদ্ধ সহ ২জন। মিডিয়াকে দেওয়া এক প্রত্যক্ষদর্শীর বয়ান অনুসারে সকাল সাড়ে ৮টা  নাগাদ  সাহেবনগরে  ব্লক তৃণমূল নেতা তহিরুদ্দিন মন্ডল বেশ কয়েকটি মারুতি গাড়ি করে মাস্তান নিয়ে এসে বনধ ভাঙার চেষ্টা করেন। পুলিসের উপস্থিতিতেই  দুষ্কৃতীরা এলোপাথাড়ি গুলি চালায়।অার তাতেই ২জন নিহত হন। মৃতের নাম অানাহরুল বিশ্বাস( ৬৫) সালাউদ্দিন শেখ(১৭)। গুলিতে জখম হয়েছেন বেশ কয়েরজন।

এই হামলার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই কাঠগড়ায় তুলেছেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। তাঁর অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেহেতু রাজ্যে বনধ করা যাবে না বলে ঘোষণা করেছেন তাই স্থানীয় তৃণমূল নেতার দলবলই বনধ ভাঙতে এই হামলা চালিয়েছে। অন্যদিকে এই হামলা তৃণমূল জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক।

সিএএ- এনঅারসি বিরোধী অান্দোলনে মুর্শিদাবাদ উত্তাল হয়েছে। প্রথম দিকে অান্দোলন কিছুটা হিংসাত্মক হলেও পরে শান্তিপূর্ণভাবে অান্দোলন চলছে।দলীয় পতাকা ছাড়া নাগরিকেরা অান্দোলনে সামিল হয়েছেন। বুধবার যেখানে গুলি চালানো হল সেখানেও নাগরিক উদ্যোগে বনধ পালিত হচ্ছিল। এরাজ্যের শাসকদল এনআরসি , সিএএ বিরোধী হওয়া সত্ত্বেও বনধে হামলা চালনোর অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে। শুধু কি বনধ করতে দেব না এই কারণে হামলা নাকি সংখ্যালঘু জনগণ তাদের উপর আর আস্থা রাখতে পারছে না সেই আক্রোশে? পুরো ঘটনার বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবি করেছে মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর।