NRC বিরোধিতার জেরেই আজিজুরের গ্রেফতারি নিয়ে প্রশ্ন তুলে বুধবার থেকে পথে পড়ুয়ারা

0
88

সাতদিন ডেস্কঃ- বিধান নগর থনার পুলিশ যে ভাবে রাতের অন্ধকারে এনআরসি ও সিএএ বিরোধি ছাত্র সংগঠনের সদস্য আজিজুর রহমানকে বাড়ি থেকে তুলে এনে গ্রেফতারের প্রতিবাদে বুধবার কলেজ পাড়ায় প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দেয় “স্টুডেন্ট এগেনষ্ট নো এনআরসি এনপিআর সিএএ”বুধবার বিকেল ৪টের সময় কলেজস্ট্রিট থেকে এই মিছিল শুরু হবে।এরই মধ্যে অারেক ছাত্রী ঊর্মিমালার বাড়িতেও তাঁর খোঁজে পুলিস হানা  দিয়েছে বলে সূত্রের খবর।

গত ৮ তারিখে বইমেলায় এনআরসি বিরোধী প্রচার করায় একদল বাম মনোভাবাপন্ন ছাত্রদের সঙ্গে বিজেপি ও আরএসএসের কর্মী সমর্থকদের বিরোধ বাঁধে।অভিযোগ সেই বিরোধের সময় পুলিশ বিজেপি ও আরএসএসের কর্মী সমর্থকদের পক্ষ নিয়ে বামপন্থী ছাত্র-ছত্রীদের উপর অকথ্য অত্যাচার চালায়।তাদের মধ্যে বেশ কিছুজনকে আটক করে বিধাননগর উত্তর ও পূর্ব থনায় নিয়ে যাওয়া হয়।এই পর্বে বিধাননগর উত্তর থানায় বেশ কয়েকজন প্রতিবাদী ছাত্রী পুলিশের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ করে।তারা এই অভিযোগের ভিত্তিতেই থানায় এফআইআর করতে চায়।পুলিশ তাদের এফআইআর নিতে প্রথমে অস্বীকার করে বলে অভিযোগ।এর পর পুলিশ থানা চত্তর ফাঁকা করে দেওয়ার কথা বলে সেখানে আটক ছাত্রদের যারা ছাড়াতে যান তাদের।এমতবস্থায় সেখানে প্রতিবাদী ছাত্রদের সঙ্গে আবারও বচসা হয় পুলিশের সেই সময় প্রহৃত ও লাঞ্ছিত একদল ছাত্র সেখানকার এক মহিলা পুলিশের উপর চড়াও হয়।সেই ঘটনার সূত্র ধরেই মঙ্গলবার রাতে সেদিনকার প্রতিবাদী ছাত্র আজিজুর রহমানকে তার রাজারহাটের বাড়ি থেকে বিধাননগর উত্তর থানায় তুলে আনে পুলিশ।তুলে আনার সময় তাকে বলা হয় শুধু জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।আজিজুরকে থানায় নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে তার বন্ধুদের অনেকেই থানায় উপস্থিত হয়ে যান।অভিযোগ মঙ্গলবার রাতে পুলিশ কোন আ্যরেস্ট মেমো দেখায় নি,কোন অভিযোগের নথিও দেখায় নি।বুধবার সকালে আজিজুরের বন্ধুদের বলা হয় ওকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে,ওর বিরুদ্ধে একাধিক ধরায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।এর মধ্যে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা ও মহিলার শ্লীলতাহানিরও অভিযোগ রয়েছে।মঙ্গলবার আজিজুর রহমানকে কোর্টে পেশ করা হয়,তাঁর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় অভিযোগ দায়ের করায় বিচারক আজিজুরকে ৯দিনের জেল  হেপাজতে রাখার নির্দেশ দেয় অাদালত।

আজিজুরের বন্ধুদের অভিযোগ এ রজ্যে এনআরসি বিরোধিতা করলে এভাবে জেলে পোরা হলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কোন যুক্তিতে এনআরসি বিরোধী বলে নিজেকে দাবি করেন।রাজ্য মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআরও এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে।তাদের মতে পুলিশ যেভাবে রাতের অন্ধকারে বাড়িতে গিয়ে মিথ্যে বলে গ্রেপ্তার করছে তা অত্যন্ত ভয়াবহ ইঙ্গিত দিচ্ছে।অবিলম্বে এর বিরুদ্ধে মানুষকে পথে নামার আহ্বান জানিয়েছে এপিডিআর।ধৃত আজিজুরের সংগঠনের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে আজিজুরকে অবিলম্বে মুক্তি না দিলে তারা সর্বাত্মক আন্দোলন শুরু করবে।বুধবার সেই আন্দোলনের সূচনা হতে যাচ্ছে বলে জানাচ্ছেন আজিজুর রহমানের বন্ধুরা।