দিল্লি বিধানসভায় NPR বিরোধি প্রস্তাবেও কৌশলি কেজরিওয়াল

0
110

সাতদিন ডেস্কঃ দিল্লি বিধানসভায় NPR স্থগিত করার প্রস্তাব পেশ করছে কেজরিওয়াল সরকার। প্রস্তাব পেশ করে মন্ত্রী গোপাল রাই বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যাই বলুন না কেন এনপিঅার এর মূল উদ্দেশ্য এনঅারসি। অার এতে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের ক্ষতি হবে। মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল রাষ্ট্রপতির ভাষণকে উদ্ধৃত করে বলেন দেশে এনঅারসি করা সরকারের প্রাথমিক কাজ। অাপ বিধায়ক অতশী মারলেনা  বলেন কেন্দ্র সরকার মিথ্যে বলছে এনপিঅার সেন্সাসের অঙ্গ নয়। এনপিঅার ১৯৫৫ নাগরিকত্ব অাইনের যে সংশোধন ২০০৩ সালে হয়েছিল তার অধীন। অার সেন্সাস হয় ১৯৪৮ সালের অাইনের দ্বারা।

অার এতেই এনঅারসি এনপিঅার বিরোধীদের একটা অংশ থেকে বলা হচ্ছে জনগণের চাপে এনপিঅারের বিরোধিতা করল কেজরিওয়াল সরকার। কিন্তু বাস্তবটা কী?একদিকে এনপিঅার মানেই এনঅারসি করার জন্য তথ্য সংগ্রহ বলছে অাপ অার অন্য দিকে মন্ত্রী গোপাল রাই এনপিঅার এর বিরোধিতায় প্রস্তাব যখন বিধানসভায় পেশ করছেন সেই সময় বলছেন যদি কেন্দ্র এনপিঅার করতে বাধ্য করে তাহলে তা হোক ২০১০ সালের প্রশ্নমালার ভিত্তিতে( সূত্র ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস)।

এনপিঅার যে এনঅারসির জন্য তা মানছেন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল। অার এতে যে দেশের ৯০ শতাংশ নাগরিক অসুবিধায় পড়বেন তা বিধানসভায় বলেছেন তিনি। কেজরিওয়ালও বলেছেন দেশে এনঅারসি করবেই সরকার। অথচ কেজরিওয়ালের ভাষণ মন দিয়ে শুনলে বোঝা যাবে অাগাগোড়া হিন্দুদের কত ক্ষতি হবে সেই কথা বলেছেন তিনি।

দিল্লি দাঙ্গার প্রেক্ষিতে কেজরিওয়ালের ভূমিকা ইতিমধ্যেই প্রশ্নের মুখে। এবার এনপিঅার বিরোধিতা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এনপিঅার বিরোধিতাও করবো কেন্দ্রের চাপে তা লাগুও করবো এই পথে হাঁটতে চাইছে কেজরিওয়াল সরকার। অাশঙ্কা থাকছে কেজরিওয়ালের দেখান পথেই না অবিজেপি সরকারগুলো অাগামী দিনে হাঁটতে  শুরু করে। পর্যবেক্ষকমহলের একাংশের মতে ২০১০ ও ২০২০ এনপিঅার এর উদ্দেশ্য অালাদা কিছু নয়। ২০১০ এর প্রশ্নমালা থেকেও এনঅারসি করা যেতে পারে। তাই এনঅারসি বিরোধিতা করতে হলে এনপিঅার স্থগিত  নয় বাতিলের দাবিতেই সোচ্চার হতে হবে বলে মনে করছেন তাঁরা।