কেরলে রাজ্য কর্মীদের বেতন কাটার সিদ্ধান্ত অবৈধ বলে হাইকোর্ট জানানোর পর অর্ডিন্যান্সের রাস্তায় বাম সরকার

0
3117

সাতদিন ডেস্কঃ করোনার অজুহাতে সরকারি কর্মীদের ৫ কিস্তিতে ১ মাসের বেতন কাটার যে সিদ্ধান্ত কেরল সরকার নিয়েছিল তা বৈধ নয় বলে মঙ্গলবার জানায় হাইকোর্ট। এর পর  ওই পরিমান বেতন অাগামী ৫ মাস সংশ্লিষ্ট মাসে  দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিলেন রাজ্য সরকারের অর্থমন্ত্রী থমাস অাইসাক। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী কেরলের অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন সরকারি কর্মীদের বেতন কাটা হবে না তবে অাগামী ৫ মাস প্রতি মাসের ৬ দিনের বেতন এখন নির্দিষ্ট মাসে দিতে পারবে না রাজ্য সরকার। এরজন্য অর্ডিন্যান্স অানবে রাজ্য সরকার। রাজ্যের অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন কেন্দ্রের কাছ থেকে পাওনা অর্থ না পাওয়ায় সরকারি কর্মীদের পুরো বেতন ও পেনশন এখন দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। একটা অংশ পরে দেওয়া হবে।

 করোনা মোকাবিলার নামে ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি রাজ্য সরকার কর্মীদের বেতন কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ৩ কিস্তি ডিএ ফ্রিজের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। এর পর কেরল সরকার সিদ্ধান্ত নেয় অাগামী ৫ মাস ধরে প্রতিমাসের ৬দিনের সরকারি কর্মীদের বেতন কেটে নেওয়া হবে। যাদের বেতন বা পেনশন মাসে ২০ হাজার টাকার নীচে তাদের বেতন বা পেনশন থেকে এই ১ মাসের  বেতন বা পেনশন কাটবে না বলে সরকার অাগে জানিয়েছিল। মঙ্গলবার কেরল হাইকোর্ট সরকারি কর্মীদের বেতন কাটার রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তকে অবৈধ বলে জানিয়ে দেয়। অার এরপরই  কিছুটা ঘুর পথে অাগামী ৫ মাস বেতন কম দেবে বলে অর্ডিন্যান্সের পথে হাঁটতে চাইল বাম সরকার।