দেশে করোনায় মৃতের সংখ্য৪ হাজার ছুঁইছুঁই, অাক্রান্ত ১লক্ষ ৩১ হাজারেরও বেশি

0
8

সাতদিন ডেস্কঃ(২৩/৫/২০২০) দেশে প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা অাক্রান্তের সংখ্যা।শনিবার  ৬৬৫৪জনের শরীরে করোনার সন্ধান মিলেছে। করোনায়  অাক্রান্তের সংখ্যা অন্তত ১৩১৩১০।  মৃতের সংখ্যা অন্তত ৩৮৬৮।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বারবার বলছে টেস্ট করে করোনা অাক্রান্ত রোগীদের খুঁজে বের করে তাদের পৃথক করে রাখতে হবে। গত ১৮ মে এর পর থেকে এদেশে  দৈনিক টেস্টের সংখ্যা  এক লক্ষ ছাড়িয়েছে,।২২ মে দেশে ১১৫৩৬৪টি করোনা টেস্ট করা হয়েছে। যা কিনা অত্যন্তই কম। ফলে অাক্রান্ত রোগীর সঠিক সংখ্যাটা ধরা পড়ছে না বলে মনে করছেন অনেকেই। করোনা উপসর্গ নিয়ে রোগীর মৃত্যু হলেও অভিযোগ উঠছে অন্য কারণে মৃত্যু বলে চালিয়ে দেওয়ার। শুধু এরাজ্যে নয় দিল্লি , মধ্যপ্রদেশেও তথ্য গোপনের অভিযোগ উঠেছে। অন্যরাজ্যগুলিও যে সঠিক তথ্য দিচ্ছে তা ভাবার কোন কারণ থাকতে পারে না। ফলে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা কম দেখানোর প্রবনতা দেখা যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞ ও চিকিত্সকদের মধ্যে যেখানে এদেশে এখননো পর্য্ন্ত দেড় কোটির কাছাকাছি টেস্ট হওয়া উচিত ছিল সেখানে ১৮মে পর্যন্ত টেস্ট হয়েছে ২৪লক্ষের মতন। অর্থাত্ টার্গেটের মাত্র ১০-১১ শতাংশের মত। সবে দৈনিক ১ লক্ষ টেস্ট করে ওঠা সম্ভব হয়েছে। এত কম টেস্টে   দেশে আক্রান্তের সঠিক ছবিটা পাওয়া কখনওই সম্ভব নয়।  বহু মানুষই মারা যাচ্ছেন অথচ তাঁদের পরিবারের সদস্যরা  জানতেই পারছেন না মৃত ব্যক্তি কোভিড পজিটিভ ছিলেন কি না। ফলে দেশে করোনায়  অাক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিশ্চিতভাবে  কমিয়ে দেখান হচ্ছে বলে মনে করেন অনেকে।

একথা সত্যি উন্নত দেশগুলি যেখানে করোনা মোকাবিলায় সরঞ্জামের অভাবে নাজেহাল হচ্ছে সেখানে ভারতের মত দেশে সব কিছু ঠিকঠাক চলবে তা অাশা করা যায় না। কিন্তু তথ্য গোপন করে কি করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা সম্ভব। করোনায় মৃত আক্রান্তের  সংখ্যা কমিয়ে দেখিয়ে বিপদকে ঠেকানো সম্ভব নয় বলে মত বিশেষজ্ঞদের ।

ছবি  প্রতীকী, রয়টার্সের সৌজন্যে