২ মাস পর ঘুম ভাঙলঃ পরিযায়ী শ্রমিকদের বিনামূল্যে খাবার, পরিবহনের ব্যবস্থা করতে সরকারকে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

0
87

সাতদিন ডেস্কঃ ২ মাস পর অবশেষে ঘুম ভাঙল।  সুপ্রিম কোর্টের ৩ সদস্যের বেঞ্চ মঙ্গলবার জানিয়েছে লকডাউনের সময় পরিযায়ী শ্রমিকদের বিষয় রাজ্য ও কেন্দ্রের বেশ কিছু গাফিলতি লক্ষ করা গেছে। অবিলম্বে অাটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য বিনামূল্যে খাবার,থাকার ব্যবস্থা, ও  পরিবহণের ব্যবস্থা করতে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ অাদালত।

 লকডাউনের ২ মাস অতিক্রান্ত। পরিকল্পনাহীন( না অন্য পরিকল্পনা!) লকডাউনের জেরে গরিব ও পরিযায়ী শ্রমিকদের অবস্থা শোচনীয়। ইতিমধ্যেই প্রায় ১০০জন পরিযায়ী শ্রমিক বাড়ি ফিরতে গিয়ে রাস্তায় দুর্ঘটনায় মারা গেছেন।  নেই খাবার বা শেল্টার। পরিবহণের সুযোগ এখনও অপ্রতুল। তাই ৪৫ ডিগ্রি তাপমাত্রায়  এখনও বহু শ্রমিককে হেঁটে বাড়ি ফিরতে দেখা যাচ্ছে। ট্রেনের সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় অত্যন্ত কম। স্টেশনে এসে অপেক্ষা করলেও মিলছে না ট্রেন। কেউ তাঁদের কথা শুনতেও রাজি নয়।

পরিযায়ী শ্রমিকেরা নিজের অর্থে ট্রেনের টিকিট কাটছেন অথচ কেন্দ্র দাবি করছে টিকিটের ৮৫ শতাংশ নাকি তারা দিচ্ছে। রাজ্য বলছে তারা ফ্রিতে অানছে পরিযায়ী শ্রমিকদের। সরকার ভুলে যাচ্ছে  যা করছে বা করার দাবি করছে তা কোন দয়ার দান নয়, নাগরিকের ওপর তাদের এটা অবশ্য করনীয় কাজ। লকডাউনকে সামনে রেখে করোনা মোকাবিলায় নিজেদের ব্যর্থতাকে অাড়াল করতে চাইছে সরকার। অার এখন করোনার প্রকোপ বাড়ার জন্য দায়ী করা হচ্ছে বাড়ি মুখি পরিযায়ী শ্রমিকদের। তাই অাদালতের এই নির্দেশের পর বাস্তব ছবিটা একটুও পাল্টাবে বলে মনে করছেন না অনেকেই।