অারো কিছু ছাড়া সহ ৩১ মে পর্যন্ত ফের দেশজুড়ে লকডাউন, অনাহারে মৃত্যুর দিকেই কি এগোচ্ছে দেশ?

0
41

সাতদিন ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী অাগেই জানিয়েছিলেন দেশে চতুর্থদফার জন্য লকডাউন হবে। মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী অাগামী ৩১ মে পর্যন্ত ফের বাড়ান হল দেশজুড়ে লকডাউনের মেয়াদ। চতুর্থ দফায় ১৪দিনের জন্য বাড়ছে লকডাউনের মেয়াদ। তবে লকডাউনে এবার ছাড় থাকছে বাস ও ক্যাবে। বিমান, মেট্রোরেল , শপিং মল , সিনেমা হল , স্কুল কলেজ এখনই খুলছে না। সন্ধে ৭টা থেকে সকাল ৭টা অবধি কার্ফু থাকছে। ১০ বছরের নীচে বা ৬৫ বছরের বয়সের বেশি মানুষকে বাড়ির বাইরে বেরতো নিষেধ করেছে কেন্দ্র। এবারের লকডাউনে অনেক বেশি দায়িত্ব রাজ্যকে দেওয়া হয়েছে কী চলবে অার কী চলবে না, কী খুলবে অার কী খুলবে না তা ঠিক করতে।   ইতিমধ্যেই দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩০০০  এর কাছাকাছি। অাক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষের কাছাকাছি।

দফায় দফায় লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি করে করোনা মোকাবিলার কেন্দ্রের পথকে সমালোচনা করেছেন অনেকেই।  হেঁটে বাড়ি ফিরতে থাকা  পরিযায়ী শ্রমিকের একজন টেলিভিশন ক্যামেরার সামনে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে জানিয়েছেন এসিতে বসে যারা নীতি ঘোষণা করেন তাঁরা কী করে গরিবের কষ্ট বুঝবেন।

অনেকেই বলছেন  পরিকল্পনাহীনভাবে লকডাউন ঘোষণার পর থেকে কোন পরিকল্পনা লক্ষ করা যাচ্ছে না সরকারের তরফে। পরিযায়ী শ্রমিকেরা ট্রাক ও ট্রেনে চাপা পড়ছেন অার নেতারা অাঁকচাঅাঁকচি করছেন।গরিবের হাতে নগদ টাকা দেওয়ার কোন ইচ্ছে সরকারের নেই। বরং লকডাউনকে কাজে লাগিয়ে ঢালাও বেসরকারিকরণের পথে হাঁটতে চাইছে সরকার। ফলে  মানুষের কাছে বেছে নেওয়ার  সুযোগ থাকছে না। অনাহারে মৃত্যুর থেকে তারা করোনার বিরুদ্ধে নিজেরাই রাস্তায় নেমেই প্রতিরোধ গড়ে তুলতে চাইছেন।