শ্রমিকদের টাকা দিতে পারে না কারণ বিজেপি টাকা রাখে শুধু বিধায়ক- সাংসদ কেনার জন্যঃমহম্মদ সেলিম

0
50

সাতদিন ডেস্কঃ দেশ জুড়ে ভিনরাজ্যে কাজে যাওয়া এরাজ্যের শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে বিজেপি টাকা দিতে পারে না,কিন্তু কোটি কোটি টাকা দিয়ে তারা রাজ্যে রাজ্যে এমএলএ কিনে সরকার বদলে দিতে পারে আর এখন রাজ্যসভার সাংসদ কেনার জন্য ব্যস্ত হয়ে উঠেছে।দেশ জোড়া লকডাউন ও আনলক পর্বে হাজার হাজার শ্রমজীবী মানুষের অসীম দুর্দশার পরিপ্রেক্ষিতে এভাবেই দেশের শাসক দলকে কটাক্ষ করলেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম।সোমবার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে করা এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই সিপিএম নেতা বলেন শ্রমিকদের দেবার মত টাকা নেই বিজেপির,অথচ এই লকডাউনের মধ্যেই তারা কোটি কোটি টাকা দিয়ে এমএলএ কিনে মধ্যপ্রদেশে নির্বাচিত সরকার ভেঙে নিজেদের সরকার তৈরি করেছে।আর এখন রাজ্য সভায় স্পষ্ট সংখ্যা গরিষ্ঠতা পেতে সাংসদ কিনতে প্রয়াসি হয়েছে।একদল মানুষ যখন ভয়াবহ সময়ের মধ্যে বেঁচে থাকার লড়াই করছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি তখন বিহার আর পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনের দিকে লক্ষ্য রেখে ভার্চুয়াল রাজনৈতিক জমায়েতের কথা বলছেন।সেলিমের মতে যখন মানুষকে খেতে দেবার,তাদের কর্মের নিশ্চয়তা দেবার কথা তখনও এঁরা রাজনীতির কথা বলে চলেছে।এদের এই আচরণ এদের বিবেক ও মানবিকতা বিহীন রাজনীতির পরিচয় তুলে ধরছে বলে অভিযোগ করেন মহম্মদ সেলিম।সিলেম জানান আগামি ৯ জুন তারা বামপন্থীরা এক প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দিয়েছেন সেই সমাবেশে সমস্ত গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষ একজোট হয়ে সামাজিক দুরত্বের যাবতীয় বিধি মেনে দেশ ও রাজ্যের সরকারের চরম ব্যর্থতা ও দূর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সামিল হবেন।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে মহম্মদ সেলিম রাজ্যের তৃণমূল সরকারের দুর্নীতি ও জোচ্চুরির বিরুদ্ধেও সরব হন।তাঁর মতে রাজ্যের একটা বড় অংশের মানুষ এখনও কোন ত্রাণ না পেয়ে এক ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে রয়েছেন সরকার সেদিকে দৃষ্টি না দিয়ে ভোট প্রচারে ব্যস্ত হতে চাইছে,এথচ এই সরকারের মুখ্যমন্ত্রী রাজনীতি না করার কথা বলেন বার বার।এই দ্বিচারীতার মুখোশ খুলে দিতে সেলিম সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান করেন।একই সঙ্গে তিনি এদিন জানান মানুষের মুখোমুখি হবার সাহস নেই বলেই অমিত শাহ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার বার ভার্চুয়াল প্রচারের কথা বলছেন,তারা যে মানুষের কাছে সরাসরিও পৌঁছে যেতে চান সেই দাবিও করেন মহম্মদ সেলিম।সেলিম এদিন এনআরসি বিরোধী আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধে বিজেপি সরকারের প্রতিহিংসাপরায়ন মানসিকতার তীব্র বিরোধিতা করে এর বিরুদ্ধে প্রতিটি সচেতন ও বিবেকবান মানুষকে