কালোবাজারে দেড়লাখে বিক্রি হচ্ছে করোনা চিকিত্সার ওষুধ

0
206

সাতদিন ডেস্কঃ প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করনোয় অাক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মানুষের মনে ভয়। ভয়ের যথেষ্ট কারণও রয়েছে। অাক্রান্ত হলে হাসাপাতালে বেড পেতে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে এমনকি ওষুধ কিনতে হচ্ছে কালােবাজারে। চমকে উঠছেন!

  পুরোন ওষুধ করোনার চিকিত্সার নামে বাজারে ছাড়ছে বহুজাতিক সংস্থাগুলি। এদেশে তা অনুমোদন পাচ্ছে। এরকমই একটি ওষুধ রেমডেসেভির। প্রতিটি ডোজের দাম ৪৫০০- ৫০০০ টাকার মতন। outlookএর রিপোর্ট অনুযায়ী দিল্লিতে এই ওষুধটি কালোবাজারে  বিক্রি হয়েছে এর ১০গুন দামে। এরকমই অারেকটি ওষুধ টসিলিজুমাব। সুইডেনের একটি ওষুধ সংস্থা এই ওষুধটি তৈরি করে থাকে। এদেশে সিপলা তা অামদানি করে দেশের বাজারে ছাড়ে। পুরো কোর্সটার সঠিক দাম কত তা নিয়ে বিতর্ক অাছে। তবে এমঅারপি অনুযায়ী এর দাম  ৯২ হাজার ৬৭২টাকা। কালো বাজারে এই ওষুধটি বিক্রি হচ্ছে দেড় লাখ টাকায়।

দেশে করোনা অতিমারির সময়ও অতি মুনাফা লুটছে বেসরকারি হাসপাতাল ও ওষুধ কোম্পানিগুলি।একদিকে বেসরকারি হাসাপাতালের লাগামহীন বিল অন্যদিকে করোনা চিকিত্সার নামে দামি দামি ওষুধ বাজারে ছাড়া হচ্ছে। দেশের সরকার একের পর এক দামি অপিরিক্ষিত ওষুধকে করোনা চিকিত্সায অনুমোদন দিচ্ছে। যার অধিকাংশটাই বহুজাতিক কোম্পানির। তার পর ওই সব ওষুধের চলছে কালোবাজারি। তাও অাবার দেশের রাজধানী দিল্লি ও ফিনান্সিয়াল ক্যাপিটাল মুম্বইতে। এর  পরও করোনা চিকিত্সায় সরকারের কোন ভূমিকা নেই কেউ বলবেন?

সূত্র scroll.in