প্রধানমন্ত্রীকে কেন প্রতারক বললেন বিশিষ্ট অাইনজীবী অরুণাভ ঘোষ?

0
42

সাতদিন ডেস্কঃ-সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র দামোদার দাস মোদীর ভারত-চিনের উত্তেজনা প্রবন সীমান্ত লাখাদে যাওয়া ও আহত সেনা কর্মীদের সঙ্গে দেখা করা নিয়ে সংবাদ মাধ্যমে যে খবর লাগাতার প্রচার করা হয়েছে তা নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করলেন বিশিষ্ট আইনজীবী ও রাজ্য কংগ্রেসের নেতা অরুণাভ ঘোষ।রাজনৈতিক নেতার চেয়েও নাগরিক আন্দোলনের মুখ হিসেবে বেশি পরিচিত অরুণাভ ঘোষ প্রধানমন্ত্রীর চিন ভারত সীমান্ত পরিদর্শনকে পুরোপুরি সাজানো একটা নাটক বলে কটাক্ষ করে বলেন দেশের মানুষের সঙ্গে চূড়ান্ত প্রতারনা করেছেন নরেন্দ্র মোদী।অরুণাভ ঘোষের মতে সংবাদ মাধ্যমের সহায়তায় একটা গিমিক তৈরি করে বিজেপির ভাবমূর্তি তৈরির চেষ্টা চলছে।প্রধানমন্ত্রী যে স্থান পরিদর্শন করেছেন তা লাদাখ সীমান্ত নয়,বরং লাদাখের অনেক আগে ঐ স্থানের অবস্থান।মোদীকে অত্যন্ত নিম্ন স্তরের এক প্রতারক বলে উল্লেখ করে অরুণাভ ঘোষ বলেন,”এমন নিম্ন রুচির একজন মানুষ ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আসনে বসেছেন,যিনি মানুষকে ধোঁকা দিতে কোনরকম বিবেক দংশন অনুভব করেন না,দায়িত্ব নিয়ে বলছি যেখানে তিনি হাঁটছেন সেটা লাদাখ সীমান্ত থেকে অনেক দূরে।যেটাকে আহত সেনা কর্মীদের অস্থায়ী হাসপাতাল বলে চালানো হয়েছে সেটাও বানানো।সেখানে যেসব সেনা বসেছিলেন তাঁরা কেউই আহত ছিলেন না,সেটা ছবি দেখে পরিষ্কার বোঝা য়ায়।প্রতারক এঁরা দেশের মানুষের জাতীয়তাবাদী আবেগ নিয়ে খেলা করতে এদের বিবেকে একটুও বাঁধে না।”

এই প্রসঙ্গেই দেশের ও রাজ্যের  তথাকথিত  মূল ধারার সংবাদ মাধ্যমের তুমুল সমালোচনা করে এই আইনজীবী জানিয়ে দেন নিজেদের বেচে দিয়েছে সমস্ত সংবাদ মাধ্যম,কথা ছিল সংবাদ মাধ্যম হবে গণতন্ত্রের থাম্বা হয়েছে শাসকের ডান্ডা।প্রধানমন্ত্রীর সফরে আচমকা কেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী বাদ পড়ে গেলেন সে প্রশ্ন কেউ তুলল না,সবাই প্রচার করল এটা নাকি প্রধানমন্ত্রীর মাস্টার স্ট্রোক।যেন গোটাটাই খেলা।অরুণাভ ঘোষ আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন,”এই সব পয়সাখোর মিডিয়া ও প্রতারক প্রধানমন্ত্রী দেশটাকে কোন নরকে নিয়ে গিয়ে ফেলবে কে জানে?” সচেতন নাগরিক প্রতিরোধই এদের শায়েস্তা করতে পারে বলে মত এই আইনজীবীর।