সেরো সার্ভেতে দিল্লিতে ২৩ শতাংশ মানুষ করোনায় অাক্রান্ত ধরা পড়লেও কোন ম্যাজিকে কমছে অাক্রান্তের সংখ্যা

0
34

সাতদিন ডেস্কঃ দিল্লিতে এক সময় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছিল করোনা অাক্রান্তের সংখ্যা। দিনে ৪হাজার পর্যন্ত পৌঁছেছিল এক সময়। বর্তমানে তা ১০০০ এর নীচে নেমে গেছে। এই চমত্কার কী করে ঘটল যখন সকলেই ভাবছেন সেই সময় সামনে এলো সেরো সার্ভের রিপোর্ট। অার তাতে অাবারো চমক। এবার যানা যাচ্ছে দিল্লির ২৩ শতাংশের মত মানুষ করোনা অাক্রান্ত। ২৭জুন থেকে ১০ জুলাই পর্যন্ত NCDC করা এই সার্ভেতে উঠে এসেছে ২৩.৪৮ শতাংশ মানুষের শরীরের অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। তার মানে এরা কখনও না কখনও কোরনায় অাক্রান্ত হয়েছিলেন।

এবার অাসা যাক দ্বিতীয় পর্যায়ের অালোচনায়। হঠাত্ করে করোনা অাক্রান্তের সংখ্যা দিল্লিতে এত কমে গেল কেন। অনেকেই মনে করছেন এর কৃতিত্ব ভূল টেস্ট। করোনা টেস্টের সব থেকে নিশ্চিত পদ্ধতি হলRTPCR টেস্ট। এই টেস্ট ব্যয় ও সময় সাপেক্ষ। টেস্টের রিপোর্ট অাসতে ৪৮ ঘন্টা পর্যন্ত সময় লেগে যায়। অন্যদিকে রেপিড টেস্টে মাত্র ৩০ মিনিটে রিপোর্ট পাওয়া যায়। নিয়ম হচ্ছে রেপিড টেস্টে কেউ যদি পজিটিভ হন তাহলে তাঁকে করোনা অাক্রান্ত হিসাবে ধরা হয়। নেগেটিভ হলে তার ফের RTPCR  টেস্ট করা উচিত। দিল্লিতে ব্যাপক অাকারে রেপিড টেস্ট হলেও সেই টেস্টে যারা নেভেটিভ অাসছেন তাঁদের ফের RTPCR করা হচ্ছে না বলে মনে করছেন অনেকে। এইমসের ডিরেক্টর রনদীপ গুলেরিয়া মনে করছেন রেপিড টেস্টে নেগেটিভি অাসা ৩০ শতাংশ ব্যাক্তিকে যদি RTPCR টেস্ট করা হয় তাহলে তাদের পজিটিভ হতে পারেন।