উত্তরপ্রদেশের হাথ্রাসের ঘটনা নির্ভয়ার থেকে কম মর্মান্তিক নয় তবুও উদাসীন নাগরিক সমাজ

0
24

সাতদিন ডেস্কঃ উত্তরপ্রদেশের হাথ্রাসে ১৯ বছরের ধর্ষিতা  দলিত তরুণীর হাসপাতালে মৃত্যুর পর দেশজুড়ে ক্ষোভ লক্ষ করা যাচ্ছে না। নির্ভয়ার থেকে কোন অংশে কম অত্যাচার হয়নি তার ওপর। জিভ কেটে নেওয়া হয়েছিল। মেরুদন্ডে গুরুতর অাঘাত লেগেছিল ওই তরুণীর। ১৪ সেপ্টেম্বরের ওই ঘটনার পর  দিল্লি সহ বড় শহরে মোমবাতি মিছিলে করতে দেখা যায় নি কাউকে । নির্যাতিতা দলিত ও তাঁর ওপর যারা অত্যাচার করেছিল তারা তথাকথিত উচ্চবর্ণের বলেই কি এই উদাসীনতা?  পরিবারের অভিযোগ ১৯ সেপ্টেম্বর ঘটনার পর পর পুলিস সক্রিয় হয়নি। পরে অবশ্য অভিযুক্তদের গ্রেফতার করেছে পুলিস।

এরকমটা নয় যে দেশের অন্য রাজ্যে মহিলারা নিরাপদে অাছেন। তা নেই। তবে উত্তরপ্রদেশে একের পর এক নাবালিকা ও কিশোরীর  ধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় নিশ্চিতভাবে  রাজ্যে মহিলাদের নিরাপত্ত ঠিক কোথায় তা স্পষ্ট করে দিচ্ছে। হাথ্রাসের ঘটনা  নিয়ে বিজেপির সঙ্গে কংগ্রেস ও অন্য বিরোধীদের কিছু অাঁকচাঅাঁকচি চলবে। সামনে বিহার ভোট। দলিত ভোটের অাশায় সেরাজ্যেও হয়তো প্রচারে অাসবে বিষয়টি। কিন্তু বাস্তবে ছবি বদলাবে কি? এদিনই NCRB তরফে  জারি করা তথ্যে জানান হয়েছে ২০১৯ সালে মহিলাদের ওপর অপরাধের  ঘটনা  অাগেপ বছরের তুলনায় ৭.৮ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।